ফেসবুক গ্রুপ ‘নারায়ণগঞ্জস্থান’ আসছে নতুন রূপে

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ‘গ্রুপ বন্ধ হওয়ার পরে আমি একদিন পাবলিক ট্রান্সপোর্টে অফিসে যাচ্ছিলাম। পাশের সিটের অপরিচিত ব্যক্তিটি আমাকে বললেন, আপনি কি নারায়ণগঞ্জস্থান গ্রুপের এডমিন? আমি বললাম: জি ভাই। তখন সে আমাকে বললেন, ভাই আমাদের গ্রুপটা কখন ফিরত পাবো। এমন আরও অনেকেই বলেছেন। তবে কেউ বলে নাই আপনাদের নারায়ণগঞ্জস্থান গ্রুপ কখন ফেরে আসবে, বলেছে আমাদের গ্রুপ ফিরবে কবে। আর এই বলাতেই, সবচেয়ে ভালো লাগছে।’

বৃহস্পতিবার (৩০ মে) লাইভ নারায়ণগঞ্জের কাছে দেওয়া এক স্বাক্ষাতকারে এ ভাবেই কথাগুলো বলছিলেন সদ্য বন্ধ হয়ে যাওয়া নারায়ণগঞ্জস্থান গ্রুপের এডমিন এন্ড ক্রিয়েটর আরিফিন রওশন হৃদয়। এসময় পাশেই বসা ছিলেন এডমিন এম এইচ অপু, রিজওয়ান আমিন ও মডারেটর অভিজিৎ সাহা।

এক প্রশ্নের জবাবে আরিফিন রওশন বলেন, নারায়ণগঞ্জস্থান গ্রুপটি জেলার শীর্ষস্থানিয় একটি গ্রুপ ছিলো, এটা ওয়ান অফ দা বেস্ট অনলাইন প্লাটফরম ছিল। গ্রুপটি বন্ধ হওয়ার কারণে যেমন নারায়ণগঞ্জবাসীকে পিরা দেয়, তেমনি আমাদের একটু বেশি পিরা দেয়। কারণ আমরা দীর্ঘ ৮ বছর ধরে গ্রুপটি মেন্টেইন করছিলাম। কষ্টের সাথে সাথে আমরা অবাক হয়েছি নারায়ণগঞ্জবাসীর অনেক রেস্পন্স পেয়ে। সকলেই জিজ্ঞাসা করেছেন। কেউ ফোনে, কেউ ম্যাসেঞ্জারে, কেউ আবার সরাসরি এসে।

এডমিন এম এইচ অপু বলেন, নতুন করে করার ইচ্ছে ছিলো না। যখন গ্রুপটি চলে গেছে, তখন খুবই হতাশ ছিলাম আমরা। আমাদের ওই রকম চিন্তা ছিলো না, যে নতুন করে আরও একটি গ্রুপ করবো। কিন্তু অনেকেই আমাদের সাথে যোগাযোগ করে বলেছেন গ্রুপটার জন্য কি করা যায়, আমার কিভাবে সহযোগীতা করতে পারি। আমরা যে কোন ভাবেই হেল্প করতে পারবো। যদি আপনারা গ্রুপটি ফিরে না পান, তাহলে নতুন করে গ্রুপ খুলুন। আর এই জিনিসটাই আমাদের মুগ্ধ করেছে। সে কারণেই আমার শক্তি পেয়েছি, আর এ শক্তিকে কাজে লাগিয়ে চাচ্ছি গ্রুপটি ফিরে না পেলে নতুন গ্রুপ চালু করবো। গ্রুপে আগে যারা এডমিন ছিলাম, তারাই থাকবো। গ্রুপও আগের মতোই থাকবে। ইতোমধ্যেই নারায়ণগঞ্জস্থান নামে ১৫ থেকে ২০টা নতুন গ্রুপ খুলেছে, এতে অনেকেই বিভ্রান্ত হতে পারেন। আপনারা আমাদের গ্রুপে এড হলে দেখে নিবেন এডমিন পেনেল ও কভার পিকে আমাদের লোগো থাকবে। আশাকরি এতে কোন সমস্যা হবে না। আমরা আগের মতো করেই গ্রুপটাকে গুছিয়ে তুলবো।

এডমিন রিজওয়ান আমিন বলেন, আসলে নারায়ণগঞ্জস্থান গ্রুপের সবচেয়ে বড় শক্তি ছিলো আমাদের মেম্বাররা। আমাদের মেম্বারদের জন্যই নারায়ণগঞ্জস্থান গ্রুপটা ভালো ভাবে রান করতে পেরেছিলাম। এখন যদি নতুন করে গ্রুপ খুলি তাহলে সেই মেম্বাররাই হবে আমাদের সবচেয়ে বড় পাওয়ার। তাই নারায়ণগঞ্জস্থানের মেম্বাররা আগেও যতেষ্ঠ অসংগতিপূর্ণ পোস্ট রির্পোট টু এডমিনের মাধ্যমে আমাদের কাছে তুলে ধরেছেন। আমরাও সেগুলো পরিস্কার করে গ্রুপ যতেষ্ঠ পরিস্কার রাখার চেষ্টা করেছি। আশাকরি নতুন গ্রুপেও মেম্বারদের কাছে একই ধরনের কো-অপারেশন পাবো। আশাকরি নতুন গ্রুপটা নারায়ণগঞ্জবাসীর কাছে আগের চেয়েও ভালো ভাবে উপস্থাপন করতে পারবো।

মডারেটর অভিজিৎ সাহা বলেন, এখনও আশা রাখছি, পূর্বের গ্রুপটি পুন:উদ্ধার করতে পারবো। যদি না হয়, সে ক্ষেত্রে নতুন গ্রুপ খোঁলা হলে একই নামে, একই এডমিন প্যানেল দ্বারা পরিচালত হবে। গ্রুপের প্রাণ শক্তি হচ্ছে সদস্যরা, তাই আশা করবো তবে আগের গ্রুপে যেহেতু নারায়ণগঞ্জ সর্ম্পকিত ও নারায়ণগঞ্জের উন্নয়নে যে ভূমিকা রেখেছি। যে সমস্যা গুলো আমাদের গ্রুপের মাধ্যমে সমাধান হয়েছে। সেই একই ভাবে একই পদ্ধতিতে আমাদের নতুন গ্রুপ পরিচালিত হবে।

0