নামাজে দাঁড়ানো অবস্থায় ইমামকে হত্যা, আসামির যাবজ্জীবন

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: রূপগঞ্জে ইমামকে ধারালো দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যার অপরাধে ১ জনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন আদালত। এছাড়াও অনাদায়ে আরও ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করেছেন।

মঙ্গলবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ৬ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ আনিসুর রহমান এ রায়ের ঘোষণা দেন।

সাজাপ্রাপ্ত আসামি হলেন রূপগঞ্জ থানার হিরনাল মাঝিপাড়া এলাকার মৃত. সাবোর উদ্দিন ওরফে সাফর উদ্দীন এর ছেলে জহিরুল ইসলাম (৩৮)।

মামলার সূত্রে জানা যায়, বাদী জাহাঙ্গীর আলম এর পিতা আব্দুল মজিদ দেওয়ান রূপগঞ্জ দাউদপুর ইউনিয়নের মাঝিপাড়া মাটির জামে মসজিদের ইমাম হিসেবে ২ বছর যাবৎ দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। ২০১৭ সালের ২৬ মে রাত সাড়ে ৮ টার সময় এশারের ফজর নামাজ শেষ করে সুন্নাত নামাজ আদায় করছিলেন। তার সুন্নাত নামাজের ২ রাকাত শেষ হওয়ার পর ৩ রাকাত আদায় কালে উক্ত আসামি মসজিদের ভিতরে প্রবেশ করে ধারালো দা দিয়ে পিছন থেকে ২টি কুপ দিয়ে জখম করে পালিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন দ্রুত বাদীর পিতাকে রূপগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে কতব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত্যু বলে ঘোষণা করেন। পরে জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ৭৯(৫)১৭ ও সেশন নং ১০৭/১৮।

পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে জানা যায়, আসামি জহিরুল ইসলাম একজন খারাপ প্রকৃতির লোক। সে মসজিদের দক্ষিন পূর্ব কনারের একটি দোচালা ছোট টিনের ঘরে ঘুমাতেন। মাঝে মধ্যে মসজিদের বারান্দায় ঘুমাতেন। আসামির খারাপ কাজে বাঁধা ও নিষেধ করার কারণে ক্ষিপ্ত হয়ে ইমামকে হত্যা করেছেন।

এ ব্যাপারে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এসএম ওয়াজেদ আলী খোকন বলেন, সাক্ষীদের সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে আসামির বিরূদ্ধে আনীত অভিযোগ সত্য বলে প্রমানিত হওয়ায় বিজ্ঞ আদালত আসামিকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে আরও ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করেছেন।

0