নারায়ণগঞ্জের করোনা যুদ্ধক্ষেত্রে টিম খোরশেদের ৪ মাস

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জঃ নারায়ণগঞ্জে মহামারি করোনা শুরু হবার পর থেকেই টিম খোরশেদ মানবসেবায় নিজেদের সর্বদা নিযুক্ত রেখেছে।  নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন(এনসিসি) এর ১৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদের টিম চার মাসে ৯৮টি দাফন সম্পন্ন করেছে, যার মধ্যে ৮৯জনই করোনা আক্রান্ত বা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। দান করেছে খাদ্য সামগ্রী, অক্সিজেন সাপোর্ট, টেলিমেডিসিন সেবা ও প্লাজমা।


৮ জুলাই(বুধবার) এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ৯ মার্চ থেকে টিম খোরশেদ তার কার্যক্রম শুরু করে। এই চার মাসে এসব কাজ করতে গিয়ে টিম লিডার খোরশেদ, তার স্ত্রী এবং কয়েকজন টিম মেম্বার করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্ত হলেও যুদ্ধ থামেনি, সুস্থ হয়ে আবার নতুন উদ্যমে কাজ শুরু করেছেন। করোণা আক্রান্তের জীবন বাঁচাতে দান করেছেন প্লাজমা।

বাংলাদেশে ব্যক্তিগত উদ্যোগে তিনিই প্রথম ব্যক্তিগত উদ্যোগে দাফন সৎকার, প্লাজমা ডোনেশন ও অক্সিজেন সার্পোট দেয়া শুরু করেন। ইতোমধ্যে ৬০ হাজার বোতল হ্যান্ড স্যানিটাইজার, ৮টি অক্সিজেল সিলিন্ডারে অক্সিজেন সাপোর্ট এবং অর্ধশতাধিক প্লাজমা সংগ্রহ করে ডোনেশন, প্রায় ১৪ হাজার মানুষকে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ, ১০ হাজার মানুষকে বিনামূল্যে সবজি বিতরণ, ১৫ হাজার মানুষকে টেলিমিডিসিন সেবা প্রদান করেছেন তিনি ও তার টিম।

কাউন্সিলর খোরশেদ জানান, এ লড়াইটা মানবিকতাকে টিকিয়ে রাখতে। প্রথমদিকে এমন একটা সময় ছিল যখন বাবা মারা গেলে সন্তান সে ঘরেও যেতো না। লাশ আমরা আনতে গেলে ঘরের চাঁদরসহ আমাদের দিয়ে দিতো। তখন এই মানবিক সংকট কাটাতে আমরা মাঠে নামি।  আস্তে আস্তে মানুষের ভয় কাটলে অনেকেই এগিয়ে আসেন সাহায্য নিয়ে। এখন সেই আগের অবস্থা নেই। আমাদের লড়াইতে সবাইকে বাঁচাতে না পারলেও যে কয়জনের প্রাণ বেঁচেছে তাই আমাদের অর্জন। আমরা চাই মানবিকতা টিকে থাকুক, সতকর্তায় করোনা মোকাবেলা হোক।যতোদিন প্রয়োজন আমরা মাঠে থাকবো ইনশাল্লাহ।

কাউন্সিলর খোরশেদ একা নন, তার সাথে আরো ৬০ জন স্বেচ্ছাসেক দিন রাত কাজ করছেন। এদের মধ্যে উল্ল্যেখযোগ্য প্লাজমা টিমে খন্দকার নাঈমুল আলম, আরাফাত খান নয়ন, ইসতিয়াক সাইফি, শাহেদ আহমেদ, রিজন আহমেদ, অক্সিজেন টিমে এস কে জামান, দাফন টিমে হাফেজ শিব্বির, আশরাফুজ্জামান হিরা, আনোয়ার হোসেন, সুমন দেওয়ান, আক্তার শাহ, আয়ান আহমেদ রাফি, রফিক হাওলাদার, লিটন মিয়া, শফিউল্লাহ রনি, রিয়াদ, নাঈম, সেলিম, শহীদ, ত্রাণ টিমে জয়নাল আবেদীন, আনোয়ার আলম বকুল, নাজমুল আলম নাহিন, রিটন দে, শওকত খন্দকার, রানা মুজিব, নারী টিমে তার স্ত্রী আফরোজা খন্দকার লুনা, মেম্বার রোজিনা আক্তার, উম্মে সালমা জান্নাত, শিল্পী আক্তার, রাণী আক্তার, টেলি মেডিসিন টিমে ডা. জেনিথ, ডা. ফায়জানা ইয়াসমিন স্নিগ্ধা, ডা. আরিফুর রহমান, ডা. খাদিজাসহ কয়েকজন ডাক্তাররা। পুরো টিমের সচিবের দায়িত্ব পালন করেছেন আলী সাবাব টিপু।

0