না.গঞ্জের দুইজন পাচ্ছে স্বাধীনতার পদক: জসিম উদ্দিন

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বঙ্গবন্ধু যে লাল, সবুজের স্বপ্ন দেখে ছিলেন; মুক্তিযোদ্ধারা রক্তের বিনিময়ে অর্জন করে এনে দিয়েছেন। এখন মুক্তিযোদ্ধারা স্বপ্ন দেখেছেন সোনার বাংলার, বাস্তবায়নের দায়িত্ব পরেছে আমাদের কাধে। ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের মাধ্যমে একটু একটু করে এগিয়ে গেলেই পূরণ হবে সোনার বাংলার গড়ার স্বপ্নটিও।

শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ পৌর স্টেডিয়ামে ৭ দিন ব্যাপি আঞ্চলিক পণ্য মেলায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে এ ভাবেই ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের অনুপ্রাণিত করছিলেন জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন। আর মুক্তিযোদ্ধাদের স্বপ্ন ও নতুন প্রজন্মের মাঝে সমন্বয় করে দিতে চাইছেন তিনি।

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিসিকের এনডিসি চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত সচিব) মো. মোশতাক হাসান, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ রাইফেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক খালেদ হায়দার খান কাজল, ফতুল্লা বিসিক শিল্প মালিক সমিতির সভাপতি ও বিকেএমইএ’র সিনিয়র সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম।

জেলা প্রশাসক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হাটি হাটি পা করে দেশ এগিয়ে যাচ্ছিলো, তা অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে গেছে। এখন আপনাদের পালা। জাতীর পিতা আজ নেই। শুধু মুখে মুখে জাতীর পিতার কথা ও সালাম দিলে হবে না। ভাবতে হবে কি ভাবে কি করবো। যাতে করে স্বাধীনতা বজায় থাকে আজীবন। মুক্তিযোদ্ধারা যেন ভাবেন আমাদের জীবনের বিনিময়ে যে দেশকে আমরা অর্জন করে ছিলাম; তা ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তারা একটু একটু করে সাজাচ্ছেন সোনার বাংলায়।

ডিসি আরও বলেন, বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি শিল্প-কারখানা ও উদ্যোক্তা নারায়ণগঞ্জে। ভাষা যুদ্ধ হোক কিংবা স্বাধীনতার যুদ্ধ, নারায়ণগঞ্জের অবদান ছিল বেশ। নারায়ণগঞ্জের একেএম শামসুজ্জোহা ভাষা সৈনিক ছিলেন। তা ছাড়া ঐ সময় নারায়ণগঞ্জের মমতাজ বেগম ভাষা আন্দোলনের সময় কারাভবনও করে ছিলেন। এমন অনেক নারায়ণগঞ্জ থেকে অংশগ্রহন করে ছেন মুক্তিযুদ্ধেও।

তিনি বলেন, এ বছর ২১ শে পদক পেয়েছে নারায়গঞ্জের কৃতি সন্তান ভাষা সৈনিক মিজানুর রহমান। এছাড়াও স্বাধীনতার পদক পাচ্ছেন রূপগঞ্জের আরও দুইজন। আমাদের ঝুড়িতে অনেক কিছু আছে কিন্তু তাই বলে বসে থাকলে হবে না। প্রতিটা সময় নিজেকে আগাতে হবে এবং বুঝাতে হবে বাংলাদেশ যেন এগিয়ে থাক। এ সময় উদ্যোক্তারা যেন কোন রকম সমস্যা ও কষ্ট না পায় মেলাতে সে দিকে লক্ষ্য রাখার জন্য সরকারি কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন তিনি।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিক, নারায়ণগঞ্জ জেলা আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ও আওয়ামী লীগ নেতা ওয়াজেদ আলী খোকন প্রমুখ।

0