না.গঞ্জের প্রায় সর্বত্র রাত দশটায় আযান, ভয়-আতঙ্ক-কৌতুহল!

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: লাইভ নারায়ণগঞ্জ: করোনায় স্থবির নারায়ণগঞ্জ। আতঙ্কে আচ্ছন্ন নারায়ণগঞ্জসহ দেশের সবাই। এ অবস্থায় বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে যাওয়া এ ভাইরাস নিয়ে বিভিন্ন ধরনের বিশ্লেষণ অস্থির করে রাখছে মানুষের মন।

গত দুদিন ধরে নানা বিধিনিষেধ চলছে নারায়ণগঞ্জসহ সারা দেশে। বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে যাওয়া বারণ। এমন পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) রাত ১০টায় প্রায় এলাকায় যখন মানুষ নিজ গৃহে কেউ ঘুমাচ্ছেন, কেউবা ঘুমের প্রস্তুতি। আবার কেউ টিভিতে মনোনিবেশ। ঠিক তখনই বিভিন্ন এলাকার প্রায় সব মসজিদের মাইকে আযানের ধ্বনি ভেসে আসতে লাগলো। হঠাৎ অসময়ে আযান শুনে নানা উৎকণ্ঠা, ভয় ওঅস্থিরতা কাজ করে সবার মাঝে। ফোন দিতে শুরু করে চার দিক। আর নিয়ে স্যোশাল মিডিয়া ফেসবুকেও পোস্টের পর পোস্ট হতে থাকে। মানুষ জানতে চায়, প্রশ্ন করতে থাকে, “কেন অসময়ে আযান?’

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গোটা জেলাজুড়ে মসজিদে মসজিদে আযান দেয়া হয়েছে। উলামায়ে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আতের অনেকেই মহামারীতে নিজ ঘরে আজান দেওয়ার কথা বলেছেন এবং একটা নির্দিষ্ট সময় আজান দেওয়ারও নির্ধারন করেছেন।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রতিটা দেশেই বিপদ কালীন সময়ে আযান দেওয়া হয়েছে। চীন, স্পেন, ইটালির মতোন দেশ ও বাদ যায় নি। কেউ কেউ বলছেন, ‘বাংলাদেশের ওলামা সমাজ এর একটা অংশ তাই সিদ্বান্ত নিয়েছে আজ রাত ১০ টায় একযোগে আযান দিবে। তবে ব্যাপারটি ফলাও করে প্রচার হয়নি। তাই অনেকেই জানেনা।‘

আবার কেউ কেউ বলছেন, ‘আজকে জুম’আ রাত দোয়া কবুলের রাত। আজকে শাবান মাসের ১ম রজনী ‘

এ বিষয়ে বন্দর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শুল্কা সরকার বলেন, এসময়ে মসজিদে আজান দেওয়ার বিষয়টি অবগত নই। এ অসময়ে আজান দিবে কেন। আমরা বলেছি করোনা ভাইরাস নিয়ে মসজিদে সবাইকে সচেতন করতে, কোন আজান দিতে না। তাও আবার এতো রাতে।

আযানের বিষয়টি কয়েকটি থানার ইনচার্জরা বলতে পারেনি।

তবে, ডিআইটি জামে মসজিদের খতিব মাওলানা আব্দুল আউয়াল জানান, বালা মুসিবত দূর করার জন্য আযান দেয়া হয়। ঝড় তুফান হলেও আযান দিলে দূর হয়ে যায়।

অপর দিকে, কেউ কেউ দাবি করছেন দশটি ১০ জায়গায় আজান দেওয়া যায়- ১, সন্তান জন্ম নিলে ২,কোন মহামারী দেখা দিলে ৩, আগুন লাগলে
৪, জ্বিন দূরীভূত করা ৫, মানসিক রোগী ৬, কেউ রাস্তা হারিয়ে ফেললে। ৭,কোন হিংস্র জানোয়ার এর আক্রমণ রোধ করার জন্য। ৮, কেউ অতিরিক্ত রাগান্বিত হলে ৯,কোন এলাকায় মহা দুর্ভিক্ষ দেখা দিলে ১০, ইন্তেকালের পর কবরের পাশে।

0