না.গঞ্জে নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব মানছে না কেউ

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: গত ২৬ মার্চ থেকে সকল দোকানপাট, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও যানবাহন চলাচল বন্ধ; করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে এ সব সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। অথচ, সরকারের নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে গিয়ে সামাজিক দূরত্বের বিষয় গুলো মানছে না তৃণমূলের কেউ।

রোববার (২৯ মার্চ) সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন সরকারি ও ব্যক্তি পর্যায়ের কর্মসূচিতেও এ চিত্র দেখা গেছে।

গত ২৬ মার্চ নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের একটি জরুরী ঘোষণায় বলা হয়, করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ জেলার সকল দোকানপাট, ব্যবসা প্রতিস্থান ও যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে, কাঁচা বাজার, মুদি দোকান, খাবারের দোকান, হাসপাতাল ও জরুরী পরিসেবা এ আদেশের আওতামুক্ত থাকবে। তবে, এ সকল প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে পরিচ্ছন্নতা ও নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা বাঞ্চনীয়।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে দুপুরে ফতুল্লার এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদের উদ্দেগে রাস্তায় স্প্রে ছিটাতে দেখা যায়। সেখানেও একটি পাইপ গায়ে গা লাগিয়ে খালি হাতে ধরে রাখে এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান, সাবেক চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান লিটন,এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন, আতাউর রহমান, আসমা আকতার রিতা, ইউপি সদস্য মীর জাকারিয়া জাকির, কামরুল ইসলাম, নেছার উদ্দিন, সামসুল ইসলাম, আব্দুল বাতেন, মো: ইসলাম, রোজিয়া আক্তার, সাজেদা বেগম, ইউপি সচিব দিদার হোসেন।

বিকেলে কুতুবপুর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডে নভেল করোনা ভাইরাসের সংক্রোমন ও মশার বিস্তার ধংস করতে জীবানুনাশক ছেটান ইউপি সদস্য মোঃ হান্নানুর রফিক রঞ্জু। এসময় তার পাশে থাকা মানুষ গুলোও গায়ে গা লাগিয়ে স্পে মেশিন ধরে রাখেন।

দুপুরে জেলা বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুজ্জামান জিকোর সার্বিক তত্ত্বাবধানে বক্তাবলী ইউনিয়নের রাজানগর এলাকায় অসহায় দিনমজুরের মাঝে চাল, ডাল, তেল, আলু, পিঁয়াজ, লবন তুলেদেন আওয়ামী লীগ নেতারা। সেখানেও অন্য আট-দশটা অনুষ্ঠানের মতো দৃশ্য দেখা যায়।

একই চিত্র দেখা যায় নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের আয়োজিত সরকারের দেওয়া খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানেও।

তবে, ভিন্ন চিত্র ছিল ১২ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর শকওয়াত হাসেম শকুর করা খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কর্মসূচি। সেখানে নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে দেখা গেছে।

এ ব্যাপারে প্রতিদিনের মতো আজও সংসাদ সম্মেলনে জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন বলেন, করোনা ভাইরাস সম্পর্কে জনসাধারণকে সচেতন করার জন্য জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে সেনাবাহিনী ও পুলিশ বাহিনীর সহযোগিতায় শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে সামাজিক দুরত্ব নিয়ন্ত্রনে জনসচেতনতা মূলক অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। আপনাদের প্রতি অনুরোধ সকলেই নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন।

0