না.গঞ্জে ভার্চ্যুয়াল কোর্টের ২ মাস: ১৬৬১ শুনাতিতে জামিন ৬৪৫ টি

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্টে, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ আদালতের ভার্চ্যুয়াল কোর্টে গত ২ মাসে ১ হাজার ৬৬১ টি মামলার শুনানি হয়েছে।

১২ মে (মঙ্গলবার) থেকে ১২ জুলাই (রোববার) পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালত এবং চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ মামলা গুলোর শুনানি ও জামিন আবেদন কার্যকর করা হয়।

নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতে প্রসিকিউটর (পিপি) ওয়াজেদ আলী লাইভ নারায়ণগঞ্জকে জানান, তথ্যপ্রযুক্তি ভার্চ্যুয়াল কোর্টে কার্যক্রমে গত ২ মাসে সর্বমোট ১,৬৬১ টি শুনানি হয়েছে। যার মধ্যে ৬৪৫ টি মামলার জামিন মঞ্জুর ও ১,০১৬ টি মামলার জামিন না মঞ্জুর করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে ২৬ মার্চ থেকে সারাদেশে আদালতের স্বাভাবিক কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। এমন পরিস্থিতিতে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিচারকাজ পরিচালনা জন্য আদালতে কর্তৃক ‘তথ্য-প্রযুক্তির ব্যবহার অধ্যাদেশ, ২০২০’ এর খসড়া মন্ত্রিসভায় নীতিগত চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়। ৯ মে রাষ্ট্রপতির অনুমোদনের পর আইন মন্ত্রণালয় থেকে গেজেট প্রকাশ করা হয়। দেশেরে এই ক্রান্তিকালে আইনজীবী, বিচারক, আদালতের কর্মকর্তা-কর্মচারী তথা বিচারপ্রার্থী মানুষের কল্যাণে ডিজিটাল প্লাটপর্ম ব্যবহার করে ভার্চ্যুয়াল আদালতের কার্যক্রম চলছে।

শনিবার (৩০ মে) সুপ্রিম কোর্ট দেশব্যাপী করোনা ভাইরাস বিস্তার রোধকল্পে এবং শারীরিক উপস্থিতি ছাড়া ভার্চ্যুয়াল কোর্ট পদ্ধতিতে ১৫ জুন পর্যন্ত আদালতের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য সময় বাড়িয়ে আরেকটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে।

এরপর ১৫ জুন সারাদেশের করোনার পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ভার্চ্যুয়াল পদ্ধতিতেই কোর্টের কার্যক্রম পরিচালনার আদেশ দেন বিচার বিভাগ।

এছাড়াও বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। ভার্চ্যুয়াল পদ্ধতিতেই চলবে আদালতের কার্যক্রম। তাই আইনজীবীদের কারিগরি ও তথ্য-প্রযুক্তিগত দক্ষতা বাড়াতে দেওয়া হবে অনলাইনে প্রশিক্ষণ।

আগামী ১২ জুলাই থেকে ২৪ আগস্ট পর্যন্ত পর্যায়ক্রমে সারা দেশের সকল জেলার সরকারি আইন কর্মকর্তা (জিপি-পিপি) ও সাধারণ আইনজীবীদের ‘ভার্চুয়াল আদালত পদ্ধতি ব্যবহারে দক্ষতা উন্নয়ন’ শীর্ষক এ অনলাইন প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

এলএন/এসএ/০৭১২-০৫

0