না.গঞ্জে যুবকের ৭০০ কোটি টাকার সম্পদ, বিক্রি করতে পারে সরকার

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সুখবর পেতে যাচ্ছেন যুবকের ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহকরা। নারায়ণগঞ্জে থাকা সম্পদ বিক্রি করে যুব কর্মসংস্থান সোসাইটি-যুবকের ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহকদের পাওনা মিটিয়ে দেওয়ার উদ্যোগ নিতে যাচ্ছে সরকার। এ জন্য খুব শিগগিরই একজন প্রশাসক নিয়োগ করা হতে পারে।

ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহকদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এ ধরনের সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে সরকার। তাদের মতে, যুবকের মালিকানায় শুধু নারায়ণগঞ্জে অন্তত ৭০০ কোটি টাকার সম্পদ রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে ফ্ল্যাট, বহুতল ভবন, জলাধার, কৃষিজমি ও সমতল ভূমি।

এর আগে ২০১০ সালের মার্চে যুবকের ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহকদের পাওনা ফেরত দিতে করণীয় নির্ধারণে অবসরপ্রাপ্ত যুগ্মসচিব মো. রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিশন গঠন করা হয়। কমিশন দীর্ঘ তদন্ত শেষে প্রায় এক বছর পর সরকারের কাছে একটি প্রতিবেদন দাখিল করে। কমিশন যুবকের প্রায় ৩ হাজার কোটি টাকার সম্পদ খুঁজে পায়।

সূত্র জানায়, টানা তৃতীয় মেয়াদে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর যুবকে ক্ষতিগ্রস্ত জনকল্যাণ সোসাইটির ব্যানারে প্রতিষ্ঠানটির গ্রাহকরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্শি ও বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবিরের কাছে পৃথক চিঠি দেন। সে সময় সারা দেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা যুবকের সম্পদের একটি বিবরণীও জমা দেওয়া হয়। তাতে দেখানো হয়, সারা দেশে প্রায় ৭ হাজার কোটি টাকার সম্পদ রয়েছে। এর বেশির ভাগ সম্পদ যুবকের উদ্যোক্তারা ভোগদখল করে আছেন। আবার কিছু কিছু জমি, রাবারবাগান ও সম্পদ পরিত্যক্ত অবস্থায় রয়েছে। ঢাকার পাশের নারায়ণগঞ্জেও অন্তত ৭০০ কোটি টাকার সম্পদ রয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ‘আমরা চাই আর্থিক খাতে কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা বা সমস্যা থাকবে না। হলমার্ক, বিসমিল্লাহ গ্রুপ আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। আর যুবক ইস্যুটিও বেশ পুরনো। গ্রাহকরা আমাদের কাছে আবেদন করেছেন। এর সঙ্গে জনস্বার্থের বিষয়টি জড়িত। তাই এ সম্পর্কে ভালোভাবে জানার চেষ্টা করছি। গ্রাহকদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে বিষয়টি সমাধানের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া যাবে। তবে এটি সময়সাপেক্ষ।’

0