না.গঞ্জে স্মার্ট ফোনের ব্যবহার বেড়েছে, ভিভো’র আধিপত্য বেশি

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: এক বছর আগে ভিভো ব্যান্ডের একটি মোবাইল ফোন কিনেন কলেজ ছাত্র আল-আমিন। এখন পর্যন্ত এ ফোনটির নেট স্পট, দারুন ক্যামেরা আর ঝামেলা হীন ব্যবহার দেখে ‘ভিভো’ই কেনার মনস্থির করেন তারই বন্ধু সোহান।
বৃহস্পতিবার বিকেলে দুই বন্ধু নারায়ণগঞ্জ ভিভো মোবাইল কোম্পানির শো-রুম গুলোতে গিয়ে ফোন সর্ম্পকে ধারণা নিচ্ছিলেন। উল্টে, পাল্টে দেখে নিচ্ছেন কোন ফোনের কি সুবিধা। কোন মডেলের মোবাইলের কত মূল্য।

সোহান জানান, অনেক দিনের স্বপ্ন ছিলো একটি ভালো ক্যামেরার মোবাইল কিনবো। তাই পকেট মানি থেকে সঞ্চয় করে কিছু টাকা জমিয়েছি। আমার কাছে মনে হলো, ভিভোই হবে যথার্থ। আজ দেখতে আসলাম কোন মোবাইলের কত দাম। ঈদের কোন বিশেষ ছাড়া বা উপহার আছে কিনা।

শুধু সোহান কিংবা আল আমিন’ই নয়। গত দেড় বছরের মধ্যে নারায়ণগঞ্জের ক্রেতাদের আস্থা আর বিশ্বাস অর্জন করে ৩য় স্থানে দাঁড়িয়েছে কোম্পানিটি। ভিভো সংশ্লিষ্টরা বলছেন, আগামী ঈদুল আজহার পরেই ভিভো ব্র্যান্ড দ্বিতীয় অবস্থান দখল করবে।

নারায়ণগঞ্জে ভিভো ব্র্যান্ডের মোবাইল ফোনের ডিলার মেহেদী হাসান মিশু বলেন, ভিভো মোবাইল ফোন অন্যান্য মোবাইল ফোনের তুলনায় সার্ভিস অনেক ভালো। এছাড়াও অন্যান্য হ্যান্ডসেটের চেয়ে ভিভো হ্যান্ডসেট দামের ক্ষেত্রে ২% কম। সকলের চাহিদাকে প্রাধান্য দিয়ে ১২ হাজার থেকে শুরু করে প্রায় ৪০ হাজার টাকা পর্যন্ত মূল্যের হ্যান্ডসেট রয়েছে শো-রুম গুলোতে। তাই সকলের কাছে জনপ্রিয়।

ক্রেতাদের দৃষ্টিতে এখন ভিভো ভি ১৫ প্রো:

বর্তমানে বাজারে সবচেয়ে বেশি চলতে ভি ১৫ প্রো। ফোনটিতে রয়েছে ৬ জিবি র‌্যাম, ৩২ মেগাপিক্সেলের (এমপি) পপআপ সেলফি ক্যামেরা, দ্রুত রিচার্জযোগ্য চার হাজার মিলি অ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি। এছাড়াও ভি ১৫-তে রয়েছে ২ দশমিক ১ গিগাহার্টজ অক্টাকোর সিপিইউ প্রসেসর এবং ৬৪ জিবি স্টোরেজ। এ ছাড়া ২৫৬ জিবি পর্যন্ত মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করার সুযোগ।

পাশাপাশি হ্যান্ডসেটটিতে রয়েছে সর্বশেষ অ্যান্ড্রয়েড সংস্করণ ফানটাচ ও এস ৯/৬ দশমিক ৫৩ ইঞ্চির আল্ট্রা ফুলভিউ ডিসপ্লে বিশিষ্ট। হ্যান্ডসেটটি পাওয়া যাচ্ছে নীল (টপেজ ব্লু) এবং লাল (গ্ল্যামার রেড) রঙের। এর স্ক্রিন রেজ্যুলেশন 1080×2340 পিক্সেল। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বৈশিষ্ট্যযুক্ত তিন রিয়ার ক্যামেরা গুলো যথাক্রমে ২৪, ৮ ও ৫ মেগাপিক্সেলের। এর ফলে গ্রাহক প্রয়োজন মতো নিখুঁত, পরিচ্ছন্ন ও বিস্তৃত ছবি তুলতে পারবেন। আর ভিভোর পপ আপ ক্যামেরা প্রযুক্তি সমৃদ্ধ ৩২ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা দেবে সবচেয়ে বেশি মেগাপিক্সেলের ছবি তোলার অভিজ্ঞতা।

এ ছাড়া স্মার্টফোনটির পেছনে থাকা ফিঙ্গারপ্রিন্ট দিয়ে ফোন আনলক করা যাবে। গ্রাহকরা ৩৯ হাজার ৯৯০ টাকায় মোবাইলটি কিনতে পারবেন। যারা মোবাইলে ছবি তোলা ও সম্পাদনা, মুভি দেখা, গেমস খেলাসহ নানা কর্মকান্ড সহজে ও ঝামেলাহীনভাবে করতে চান, তাদের জন্য এটি হতে পারে সেরা পছন্দ।

এছাড়াও ক্রেতাদেও দৃষ্টির শীর্ষে রয়েছে ১৩ হাজার ৯’শ ৯৯ টাকা মূল্যের Y93 ও ২২ হাজার ৯‘শ ৯০ টাকা মূল্যের Y17 ।

ঈদে ভিভোর নতুন আকর্ষণ:
বাজারে বিভিন্ন ব্রান্ডের নানান মডেল এর মোবাইল ফোনের ছড়া ছড়ি। কিন্তু নতুন প্রজম্মকে প্রাধান্য দিয়ে স্বল্প মূল্য, আকর্ষণীয় ক্যামেরাসহ নানা সুবিধা নিয়ে আগামী ২ আগস্ট বাজারে আসছে ভিভো এস ওয়ান। এস ওয়ান হ্যান্ডসেটটিতে রয়েছে ৬:৩২ মেগাপিক্সেলের (এমপি) পপআপ ৩২ সেলফি ক্যামেরা, ৬ জিবি র‌্যাম, ১২৮ রোম ও ব্যাটারী চার্জ ৪৫০০ এমপিয়ার। এ মোবাইল ফোনটির সাথে গ্রামীণ ফোনের ইন্টার নেট অফার ছাড়াও সাথে থাকছে ভিভো’র আকষর্ণীও উপহার।

যে ভাবে নারায়ণগঞ্জে এসে ছিলো ভিভো:
১৯৯৯ সাল থেকে বাবার কর্ম ও প্রেরণায় মোবাইল ফোনের ব্যবসা শুরু করেন মেহেদী হাসান মিশু। প্রথমে ফোন ক্রয়-বিক্রয়ের মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিলো তার কার্যক্রম। ধীরে ধীরে ব্যবসার পরিধী বাড়তে থাকে। সময়ের ব্যবধানে সে এখন মার্ক টাওয়ার মোবাইল দোকান মালিক সমিতির সভাপতি। এছাড়াও নারায়ণগঞ্জের মোবাইল শো-রুম কমিটির সহ-সভাপতি। দের বছর আগে তার হাত ধরেই নারায়ণগঞ্জে আসে ভিভো ব্র্যান্ড। সময়ের সাথে সাথে বেড়েছে ভিভোর পরিধিও। বর্তমানে নারায়ণগঞ্জে ভিভো মোবাইলের শো-রুমের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫টিতে। মানুষের চাহিদা অনুযায়ী এর শো-রুমের সংখ্যা আরো বৃদ্ধি পাবে।

ভিভো নিয়ে আশার কথা:
মেহেদী হাসান মিশু জানান, সকলের চাহিদাকে মাথায় রেখে সবার হাতে আমাদের এই মোবাইল তুলে দেওয়ার জন্য খুব তাড়াতাড়ি নরসংদীতে ভিভো কোম্পানীর একটি ফ্যাক্টরীর উদ্বোধন করা হবে। ফ্যাক্টরীটি হলে দেশীয় পণ্যের পাশাপাশি জন-সাধারণের কর্মস্থলেরও সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি পাবে।

0