না.গঞ্জে হচ্ছে দৃষ্টিনন্দন ১১টি প্রাথমিক বিদ্যালয়

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: শিক্ষার পরিবেশ সুন্দর করার লক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জে ১১টি দৃষ্টিনন্দন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শ্রেণীকক্ষ নির্মাণ করার উদ্যোগ নিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। এ লক্ষ্যে ‘পূর্বাচলে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপন ও অবকাঠামো উন্নয়নসহ দৃষ্টিনন্দনকরণ’ শীর্ষক একটি প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। চার বছর মেয়াদি প্রকল্পটি বাস্তবায়নে পুরোটাই অর্থায়ন করছে সরকার।

সংশ্লিষ্টরা জানান, জেলার অধিকাংশ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শ্রেণীকক্ষ পুরনো ও জরাজীর্ণ হয়ে পড়েছে। এছাড়া আশপাশের ঘিঞ্জি পরিবেশের কারণেও শিশুদের কাছে আকর্ষণ হারাচ্ছে বিদ্যালয়গুলো। এ অবস্থায় উল্লিখিত প্রকল্পের আওতায় নারায়ণগঞ্জের পূর্বাচলে ১১ দৃষ্টিনন্দন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় নতুনভাবে স্থাপন হবে।

এছাড়া এ প্রকল্পের মাধ্যমে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর নিরাপত্তা সুবিধাও বাড়ানো হবে। এজন্য সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়গুলোর চারপাশের সীমানা প্রাচীর নির্মাণ ও পুনর্নির্মাণ করা হবে। বিদ্যালয়ের প্রতি শিশুর আকর্ষণ বাড়াতে শ্রেণীকক্ষের মতো এসব সীমানা প্রাচীরকেও দৃষ্টিনন্দন ও আকর্ষণীয় করার কথা ভাবছে অধিদপ্তর।

আগামী জানুয়ারিতে শুরু হয়ে প্রকল্পটির মেয়াদ শেষ হচ্ছে ২০২৪ সালের ডিসেম্বরে। এ প্রকল্পের মাধ্যমে প্রায় দুই লাখ শিক্ষার্থীর জন্য শিক্ষা গ্রহণের শিশুবান্ধব পরিবেশ নিশ্চিতকরণসহ শিক্ষার মান বৃদ্ধি করা সম্ভব হবে বলে প্রত্যাশা সংশ্লিষ্টদের।

এ বিষয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের উপপরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) ড. মো. নুরুল আমিন চৌধুরী বলেন, প্রকল্পটির মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট এলাকায় শিক্ষার শিশুবান্ধব গ্রহণের পরিবেশ নিশ্চিতকরণের মাধ্যমে শিক্ষার মান বৃদ্ধি করা সম্ভব হবে। শিশুর মানসিক বিকাশ ঘটানোর পাশাপাশি শিক্ষায় প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করার মাধ্যমে সামাজিক বৈষম্য হ্রাস করাই এ প্রকল্পের অন্যতম প্রধান লক্ষ্য। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে প্রায় দুই লাখ শিক্ষার্থীর জন্য শিশুবান্ধব শিক্ষা গ্রহণের পরিবেশ নিশ্চিত করার পাশাপাশি শিক্ষার মানও বাড়বে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের তথ্যমতে, নারায়ণগঞ্জে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে প্রায় সোয়া ৫‘শ। এসব বিদ্যালয়ের অনেকগুলোরই ভবন বেশ ঝুঁকিপূর্ণ। অস্বস্তিকর পরিবেশে জরাজীর্ণ ভবনে লেখাপড়া করতে বাধ্য হচ্ছে শিশুরা। এ অবস্থা থেকে উত্তরণে ব্যাপক কার্যক্রম হাতে নিয়েছে সরকার। পর্যায়ক্রমে জেলার সব প্রাথমিক বিদ্যালয়কেই দৃষ্টিনন্দন করে তোলা হবে।

0