নিজ আসনে মন্ত্রী আসলেও দাওয়াত পাননি শামীম ওসমান!

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ নিয়ে নারায়ণগঞ্জ ৪ আসন। এ এলাকায় সরকারী যত উন্নয়ণমূলক কর্মকান্ড, কর্মসূচী বা মন্ত্রীদের নিয়ে সভা-সেমিনার হয়, সব গুলোতেই সরব উপস্থিতি থাকে প্রভাবশালী সাংসদ শামীম ওসমানের। তবে, ব্যতিক্রম দেখা গেল শুক্রবার (২৯মার্চ)। এদিন বিকেলে ৫টার দিকে পাগলা মেরি এন্ডারসনে এসেছিলেন বাংলাদেশ সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী ও বেসরকারি বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী। কিন্তু দেখা মিলেনি আলোচিত ও বরণ্য রাজনীতিবিদ সাংসদ শামীম ওসমানের।

কেননা, ওই অনুষ্ঠানের অতিথি তালিকায় তাকে রাখা হয়নি। এদিকে এর পূর্বে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে যতবারই বাংলাদেশ সরকারের যে মন্ত্রীই আসছিলেন সেসব অনুষ্ঠানে অন্য কোনো এমপির উপস্থিতি না থাকলেও সরব উপস্থিতি ছিলো সাংসদ শামীম ওসমানর। এমনকি তার দল আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী কোনো নেতা নারায়ণগঞ্জে আসলেই সর্বপ্রথম তাকেই বিষয়টি জানানো হতো।
সর্বশেষ পাগলা মেরিএন্ডারসনে বাংলাদেশ পুলিশকে স্পিড বোট হস্তান্তর অনুষ্ঠানে আয়োজিত সমাবেশে সাংসদ শামীম ওসমান উপস্থিতও ছিলেন। কিন্তু এবারের এই আয়োজনে এই সাংসদকে দাওয়াতও দেওয়া হয়নি বলে অনুষ্ঠান সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র নিশ্চিত করে।

তবে, সাংসদের এমন অনুপস্থিতি মেনে নিতে পারছেন না তার অুনগামি নেতাকর্মীরা। এ নিয়ে তারা যারপরনাই ব্যথিতও হয়েছেন। অপরদিকে শামীম ওসমানকে এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ না জানানোয় তার নিন্দুকদের মাঝে নানা ধরণের সমালোচনাও শোনা যাচ্ছে।

অন্যদিকে কেউ বলছেন, পাগলা মেরি এন্ডারসন সাংসদ শামীম ওসমানের নির্বাচনী এলাকায়। হিসেব মতে এই অনুষ্ঠানে তাকে দাওয়াত দেওয়ার কথা। প্রটোকলও তাই বলছে। কিন্তু সে হিসেবে তাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। বিষয়টি সত্যিই ভাবাচ্ছে। কেননা, সাংসদ শামীম ওসমান প্রায় সময় বলে থাকেন তাকে তিনবার মন্ত্রীত্ব সাধা হলেও তিনি সেটি গ্রহণ করেননি। অথচ তার এলাকায় মন্ত্রী এলেন আর তিনিই ছিলেন অবহেলিত!

এদিন তারা নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয় এবং বিআইডব্লিউটিসির যৌথ উদোগ্যে আয়োজিত ঢাকা-কলকাতা-ঢাকা নৌ রুটে যাত্রীবাহী জাহাজ ‘এমভি মধুমতি’র আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো. রাব্বি মিয়া, সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা বারিক, নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ, জাতীয় শ্রমিক লীগ নেতা কাউসার আহম্মেদ পলাশ প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। তারা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে পৃথক ভাবে ফুল দিয়েও বরণ করে নেন।

0