পত্রিকা মালিকদের কাছে টাকা চাইলেন শামীম ওসমান

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: কখনো উন্নয়ন, কখনো জ্বালাময়ী বক্তব্য। কখনো আবার তীব্র সমালোচনায় প্রতিদিনই পত্রিকার শিরোনামে দেখা যায় নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ শামীম ওসমানকে। প্রচলিতও আছে, শামীম ওসমানকে নিয়ে নিউজ প্রচার করলে নাকি? পত্রিকার কাটতিও বাড়ে। তাই, বিষয়টি নিয়ে এবার মুখ খুললেন শামীম ওসমান নিজেই। পাশাপশি পত্রিকা মালিকদের কাছে টাকাও চেয়েছেন তিনি।

শামীম ওসমানের ভাষ্যমতে, ‘আমি বেশি একটা লোকাল পত্রিকা পড়ি না। দু’চারটা পত্রিকা দেখি আর বাকিগুলো দেওয়ালে দেখি। এর মধ্যে বেশ কিছু পত্রিকায় দেখি শামীম ওসমানের নাম উপরে দিয়া থাকে। আমার নামটা ব্যবহার করে নেগেটিভ লেখলে হয়তো পত্রিকার কাটতি বাড়ে। তো ভাই, নেগেটিভ লেখবেনই যখন, তাহলে আমাকে কিছু রয়্যালটি দেন। আমারে দিয়া পত্রিকা চালাবেন, তো কিছু পয়সা-কড়ি দেন। আমিও আপনারে বিভিন্ন বিকৃত আকারের ছবি দেই। খেইপা গেছি, মারতাছি এমন কিছু ছবি ছাপেন। ওই ছবি ছাপলে আপনার আয় বাড়বে। আমারে বেইচা যদি আপনার সংসার ভালো চলে, তাহলে আমার কোন আপত্তি নাই। কিন্তু কারোর পয়সা খেয়ে নিউজ করবেন না। তাহলে কিন্তু ঈমান থাকবে না।’

বুধবার (১৭ জুলাই) বিকেলে নগরীর ২নং রেল গেটের উল্টো পাশে ফজর আলী ট্রেড সেন্টারে নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক ইউনিয়নের নতুন কার্যালয় উদ্বোধন অনুষ্ঠানে আক্ষেপ করে এ কথা বলেন তিনি।

সেখানে আরও বলেন, আমাদের পরবর্তী প্রজন্ম যেন একটি সুন্দর নারায়ণগঞ্জ পায়। যে নারায়ণগঞ্জে সর্বাধুনিক বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ, স্কুল থাকবে, নারীদের সম্পূর্ণ স্বাধীনতা থাকবে, মাদকমুক্ত থাকবে, গরীবের উপর অত্যাচার থাকবে না। সে নারায়ণগঞ্জের জন্য কাজ করছি। শুধু আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কারণে নারায়ণগঞ্জে হাই-টেক পার্ক করতে পাচ্ছি না। আমলাতন্ত্র একটা জটিল জিনিস। জমি আছে কিন্তু বের করবে না। যাই হোক কাগজপত্র তৈরি করে আজকে আমরা মন্ত্রণালয়ে দিয়ে আসলাম যাতে হাই-টেক পার্কটা হয়। এটা হলে নারায়ণগঞ্জের ইয়াং জেনারেশন যারা আইটি সেক্টরে কাজ করতে চায় তারা লাভবান হবে। এছাড়া হাসপাতাল, প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় আনার চেষ্টা করছি। আশা করছি এগুলো আমরা পারবো।

নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি এসএম ইকবাল রুমির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ্ নিজাম, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এড. হাসান ফেরদৌস জুয়েল, নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি হাবিবুর রহমান বাদল, মহানগর কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান লিটন।

নারায়ণগঞ্জের আলোর সম্পাদক কমল খানের সঞ্চালনায় এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ও যুগান্তরের জেলা প্রতিনিধি রাজু আহমেদ, কালের কন্ঠের জেলা প্রতিনিধি দিলীপ কুমার মন্ডল, লাইভ নারায়ণগঞ্জের প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ কামাল হোসেন, বাংলাদেশ প্রতিদিনের জেলা প্রতিনিধি রোমন চৌধুরী সুমন, আলোকিত সকালের জেলা প্রতিনিধি মনির হোসেন সুমন, জেলার ৫টি উপজেলার ৬টি প্রেস ক্লাবের সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ।

এসময় পুরো অনুষ্ঠানটিই জেলা-উপজেলার সাংবাদিকদের মিলন-মেলায় পরিনত হয়।

0