পাগলায় গলাকাটা সেই লাশ: পুলিশের তদন্তে ‘সজল গ্যাং’র নাম

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ফতুল্লার হত্যা মামলায় ১ জনকে ৩ দিনের রিমান্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। রিমান্ডপ্রাপ্ত আসামি হলো-পাগলা পশ্চিম শাহি মহল্লা এলাকার মো. ফজলুর করিম এর ছেলে মো. সজল (২৬)।

সোমবার (২৬ আগস্ট) সকালে আসামিকে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে উঠায় পুলিশ। পরে শুনানি শেষে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. কাউসার আলম এর আদালত এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এজাহার সূত্রে জানা যায় যে, গত বুধবার (২১ আগস্ট) নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা পাগলা পূর্ব শাহি বাজারের মো.এনায়েত হোসেন চুন্নুর বাড়িতে নৈশপ্রহরী আবুল কালাম (৫০) এর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত আবুল কালাম বরিশালের বাবুগঞ্জ থানার চাতপাশা গ্রামের মৃত. আবদুল গনি ঢালির ছেলে। আলাউদ্দিন ডাক্তারের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন তিনি। ওই এলাকাতেই আ. হান্নান সাহেবের নিমার্নধীণ বিল্ডিংয়ের নৈশপ্রহরীর হিসেবে কাজ করতেন তিনি। বাড়িওয়ালা আলাউদ্দিন ডাক্তারের জামাতা মো. এনায়েত হোসেন চুন্নু স্বপরিবারে তার গ্রামের বাড়ি বরিশালে বেড়াইতে যাওয়ার সময় তার বাসা দেখাশুনা করার জন্য নিহত আবুল কালামকে দায়িত্ব বুজিয়ে চাবিসহ থাকার জন্য একটি রুম দিয়ে যান। বুধবার দিন মো. এনায়েত হোসেন চুন্নু ঈদের ছুটি কাটিয়ে সকালে গ্রামের বাড়ি থেকে ফেরে আসে তাঁরা। বাসায় প্রবেশ করে গেইটের তালা খোলা দেখতে পান। তারপর নিহত আবুল কালামের থাকার জন্য বরাদ্দকৃত ঘরের দরজার তালা ভাঙ্গা এবং ভিতরের ঘরে প্রবেশের একটি তালা কাটা। বাসার আসবাবপত্র এলোমেলো অবস্থায় পরে আছে। রুমের ভিতরে খাটের উপর মুখ, দুই হাত ও পা কসটেপ লাগানো অবস্থায় নিহত আবুল কালামের গলাকাটা লাশ দেখতে পান। পরে খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে। পরে নিহত আবুল কালামের ছেলে মো. মনির হোসেন বাদি হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়েল করেন। মামলা নং ৬৬(৮)১৯।

নিহত আবুল কালামকে হত্যার অপরাধে পাগলা বাজার এলাকা থেকে ২৫ আগস্ট রাত সোয়া ৮ টায় মো. সজলকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

প্রাথমিক তদন্তে জানা যায়, আসামি মো. সজল এলাকায় বিভিন্ন অপকর্ম করে বেড়ায়। আসামি খারাপ প্রকৃতির লোক। তার বৈধ কোন আয়ের উৎস নেই। ঘটনার দিন থেকে আসামি মো. সজলসহ তার অপরাপর সহযোগী আসামিরা পলাতক। ঘটনার দিন ঘটনারস্থলের আশে-পাশে সন্দেহ জনক ভাবে তাদের ঘোড়া ফেরা করেত দেখা গেছে এবং ভিকটিমকে হত্যা করেছে মর্মে প্রাথমিক ভাবে স্বাক্ষ্য প্রমাণ পাওয়া গেছে।

এবিষয়ে কোর্ট পুলিশ পরির্দশক মো. আব্দুল হাই বলেন, আসামি মো. সজল হত্যা মামলার সাথে জড়িত। তাই মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে বিজ্ঞ আদালতের নির্দেশে আসামিকে ৩ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে।

0