পাগলায় প্রিয়াংকা মেম্বারের ভাইয়ের গুন্ডামি

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: পাগলায় নারী মেম্বার অনামিকা হক প্রিয়াংকার ছোট ভাই অনিকের বিরুদ্ধে মো. সেলিম (৩৭) নামে এক যুবককে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে দিনভর নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার (১ জুলাই) সকালে ফতুল্লা মডেল থানার পাগলা শাহী বাজার ব্রিজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। পরে ওই দিন রাতে সেলিমের স্ত্রী ফাতেমা (৩০) থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ রাত সাড়ে ১২টার সময় তাকে উদ্ধার করে । তবে এ ঘটনার সাথে জড়িত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

জানা যায়, নির্যাতিত যুবক মো. সেলিম পেশায় সিএনজি চালক এবং সে ঢাকার কদমতলী থানা এলাকায় বসবাস করে। শুক্রবার সকাল আটটার দিকে পাগলা শাহীবাজারস্থ শাহী বাজার ব্রিজ এলাকায় সিএনজি চালানোর জন্য যায়। এসময় ফতুল্লা থানার কুতুবপুর ইউনিয়নের ৪,৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত মেম্বার অনামিকা হক প্রিয়াংকার ছোট ভাই অনিক ও নুর মোহাম্মদ, নুরে আলম ওরফে পেদা, তানভীরসহ কয়েকজন যুবক সেলিমকে অটোরিক্সা চোর আখ্যায়িত করে আলাউদ্দিন ডাক্তারের বাড়ীতে নিয়ে গিয়ে দিনভর নির্যাতন করে। এক পর্যায়ে সিএনজি চালক সেলিমের স্ত্রী কে ওই যুবকরা ফোন করে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা নিয়ে এসে তার স্বামীকে ছাড়িয়ে নিতে বলে। স্ত্রী ঘটনাস্থলে এলেও টাকা না নিয়ে আসায় তারা তাকেও মারধর করে তাড়িয়ে দেয়। উপায়ন্তর না পেয়ে রাত ১১ টার দিকে ফতুল্লা মডেল থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করেন সেলিম স্ত্রী।

সিএনজি চালককে উদ্ধার অভিযানে নেতৃত্বদানকারী ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মোস্তফা কামাল জানান, অনিক, তানভীর, নুর মোহাম্মদ, নুর আলমসহ বেশ কয়েক জন সকালে সিএনজি চালক কে চোর আখ্যায়িত করে রাস্তা থেকে ধরে নিয় আলাউদ্দিনের বাড়ীতে আটকে রেখে নির্যাতন করে। তাকে ছাড়িয়ে নিতে বাদীর নিকট থেকে টাকা দাবী করা হয়। বাদীকে ও মারধর করে তারা। রাতে থানায় অভিযোগ দিলে তিনি সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে আলাউদ্দিনের বাসায় অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সিএনজি চালককে সাথে নিয়ে তারা সেখান থেকে পালিয়ে যায়। পুলিশ ও তাদের পিছু নিলে ফাঁকা একটি জায়গায় সিএনজি চালককে ফেলে রেখে অপহরনাকরীরা পালিয়ে যায়। সিএনজি চালককে তার পরিবারের জিম্মায় দেওয়া হচ্ছে। এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে তিনি জনায়।

এ বিষয়ে কুতুবপুর ইউনিয়নের ৪,৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডে সংরক্ষিত মেম্বার অনামিকা হক প্রিয়াংকার মোবাইল ফোনে একাধিকবার ফোন করলেও সংযোগ দেয়া সম্ভব হয়নি।