প্রত্যেক নাগরিকের টিকা প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে হবে: আবু হাসান টিপু

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: চলমান করোনা মহামারিতে বেক্সিমকো দেশ ও দেশের জনগণকে জিম্মি করে অতি উচ্চমূল্যে খোলা বাজার ও সরকারের কাছে উচ্চ মূল্যে টিকা বিক্রি করে বেশুমার মুনাফা হাতিয়ে নেবার পায়তারা করছে। মধ্যস্বত্বভোগী হিসাবে বেক্সিমকো টিকা প্রতি মুনাফার নামে কি পরিমান লুটের নকশা করেছে এ ব্যপারে সরকারের কাছ থেকেই জনগণ তা জানতে চায়।

শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) বিকেলে দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সভায় এ কথা বলেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির পলিট ব্যুরোর সদস্য কমরেড আবু হাসান টিপু।

তিনি সিরাম ইনস্টিটিউটের টিকা ভারতের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ দামে আমদানি করারও সমালোচনা করে বলেছেন, সরকার করোনার টিকাকে যে দামেই ক্রয় করুক না কেন এটাকে জনপণ্য বিবেচনা করে বিনা পয়সায় এবং সম্পূর্ণ সরকারি ব্যবস্থাপনায় প্রত্যেক নাগরিকের টিকা প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে হবে।

আবু হাসান টিপু বলেছেন, করোনা টিকা আমদানিতে কেবল ভারতের উপর নির্ভর না থেকে জরুরী ভিত্তিতে বিকল্প উৎসসমূহ বের করে স্বল্পতম সময়ে বাংলাদেশে তার ট্রায়ালের ব্যবস্থা করতে হবে। এবং স্বাস্থ্য খাতের অব্যবস্থাপনা, চুরি, দুর্নীতি ও লুটপাটের মহোৎসব ঠেকাতে টিকা, করোনার পরীক্ষা ও চিকিৎসা সংক্রান্ত যেকোন ধরনের দুর্নীতি, চুরি, দায়িত্বহীনতা ও অব্যবস্থাপনাকে দ্রুত শাস্তির আওতায় নিয়ে আসতে হবে। আর করোনার টিকা ও চিকিৎসা সংক্রান্ত যেকোন সিদ্ধান্ত ও পদক্ষেপ গ্রহণে রাজনৈতিক বিবেচনা পরিহার করে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। অন্যথায় করোনার মহামারি ঠেকানো কোন ভাবেই সম্ভব হবেনা।

অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কন্ট্রোল কমিশনের চেয়ারম্যান কমরেড সহিদুল আলম নাননু, শ্রমজীবী নারী মৈত্রীর কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক নারীনেত্রী রাশিদা বেগম, শ্রমিকনেতা হাবিবুর রহমান আঙ্গুর, রোকসানা বেগম, আইয়ুব আলী, মোক্তার হোসেন প্রমূখ।

0