প্রোডাক্টিভিটি ছাড়া ইন্ডাস্ট্রি এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয় :মোহাম্মদ হাতেম

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ফতুল্লার বিসিকে দুইদিনব্যাপি ‘উৎপাদনশীলতা উন্নয়ন’ বিষয়ক প্রশিক্ষণ এর আয়োজন করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) বিসিক শিল্প নগরীতে অবসস্থিত ক্রোনী গ্রুপের হল রুমে অনুষ্ঠানটি উদ্বোধন করেন মোহাম্মদ হাতেম। তিনি বিসিক শিল্প মালিক সমিতির সভাপতি ও বিকেএমইএ এর সাবেক প্রথম সহ-সভাপতি।

প্রায় অর্ধশত প্রশিক্ষণার্থীদের প্রতিদিন সকাল ১০ থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।

বিসিক (বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন) ও এনপিও (জাতীয় উৎপাদনশীলতা সংস্থা) এর যৌথ উদ্যোগে এ প্রশিক্ষণ কোর্সের আয়োজন করা হয়েছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন বিসিকের নারায়ণগঞ্জ শাখার সহকারী মহা-ব্যবস্থাপক মো. মিজানুর রহমান পাটোয়ারী। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিসিক ঢাকা শাখার পরিচালক (প্রযুক্তি) মো. মাহবুবুর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিসিক ঢাকা শাখার মহাব্যবস্থাপক (প্রযুক্তি) মো. মহিউদ্দিন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, আজকের দিনে শিল্পে উৎপাদনশীল বৃদ্ধি এ দেশবাসীর জন্যে তেমন কোন কঠিন বিষয় নয়। উন্নত প্রযুক্তি উত্তম পন্থায় ব্যবহারে ও যথাযথ পরামর্শের মাধ্যমে প্রোডাক্টিভিটি বা উৎপাদন বাড়ানো যাবে। উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি করতে ‘উৎপাদনশীলতা উন্নয়ন’ বিষয়ক প্রশিক্ষণ সকলকে উদ্বুদ্ধ করবে। জনবহুল এ দেশে অনেক কারিগর-শ্রমিক রয়েছে। তবে একেক জনের উপাজর্ন একেক রকম হয়। এর কারণ হলো কারিগরের দক্ষতা। উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি করতে এদেশে প্রয়োজন দক্ষ শ্রমিক।

তিনি বলেন, কাজে দক্ষতা বৃদ্ধি পেলে যেকোন ব্যবসায়িক চুক্তিতে অগ্রাধিকার বাড়বে। এতে করে বৈদেশিক মুদ্রা আয়ের মাত্রা বাড়বে, তদ্রুপ বৃদ্ধি পাবে উৎপাদন।

অনুষ্ঠান উদ্বোধনকালে মোহাম্মদ হাতেম বলেন, প্রোডাক্টিভিটি বা উৎপাদনশীলতা ছাড়া আমাদের ইন্ডাস্ট্রি এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। প্রোডাক্টিভিটি ইম্প্রুভমেন্ট করতেই হবে। আর আজকে প্রডাক্টিভিটি ইম্প্রুভমেন্ট করার জন্য সেই আয়োজন করেছে শিল্প মন্ত্রণালয়। তাদের এই সময় উপযোগী একটি আয়োজনের জন্য আন্তরিক কৃতজ্ঞতা এবং ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

প্রশিক্ষণার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আজকের এই প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আপনাদের আরো কিছু জ্ঞান সমৃদ্ধ হবে এবং আধুনিক পদ্ধতি সম্পর্কে অবহিত হবেন। যা কাজের ক্ষেত্রে প্রয়োগ করে এবং পাশাপাশি সহকর্মীদের এই বিষয়টি অবহিত করে তাদেরকেও সাহায্য করবেন। তাহলে আমাদের উৎপাদন বাড়বে এবং আমরা প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার সামর্থ্য লাভ করবো।

আগামী ১৭ই ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত এ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম চলবে। এতে প্রশিক্ষক হিসেবে এনপিও হতে ৩ জন কর্মকর্তাকে নিযুক্ত করা হয়েছে। তারা হলেন, মুহাম্মদ আসিফুজ্জামান, মো. মেহেদী হাসান ও মো. রিপন মিয়া।

0