প্রয়োজনে ক্ষমা চাইবো কিন্তু কাজে বাধা দিতে দিব না: মেয়র আইভী

0

সিদ্ধিরগঞ্জ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সিদ্ধিরগঞ্জের ভাঙ্গারপুল থেকে ঢাকার ডেমরা থানাধীন গলাকাটা ব্রীজ পর্যন্ত প্রায় ১০০ শত কোটি টাকা ব্যায়ে ডিএনডি খাল পুনঃখনন, ৬টা ব্রিজ, ড্রেনকাম, ফুটপাত, রাস্তার পাড় বাধাই ও সৌন্দর্য বর্ধন প্রকল্পের পরিদর্শনে করেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী।

রোববার (১৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সিদ্ধিরগঞ্জের হিরাঝীল সংলগ্ন ডিএনডি পাড় থেকে সিদ্ধিরগঞ্জ পুল পর্যন্ত পায়ে হেটে পূর্বে উচ্ছেদ হওয়া এলাকা পরিদর্শন করেন এবং স্থানীয়দের উচ্ছেদ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে কথা বলেন।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, নাসিক প্যানেল মেয়র বিভা হাসান, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি মজিবর রহমান, সাধারণ সম্পাদক হাজী ইয়াছিন মিয়া, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য সাদেকুর রহমান, মহানগর আওয়ামীলীগের ত্রাণ ও পুণর্বাসন সম্পাদক কাজী আতাউর রহমান, নাসিক ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ওমর ফারুক, নারায়ণগঞ্জ শহর যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি কামরুল হুদা বাবু, সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর মাকসুদা মোজাফ্ফর, মনোয়ার বেগম, আয়েশা আক্তার দিনা, জামান মিয়া, বশির আহামেদ, মিজানুর রহমান খাঁন রিপন, মোতালেব , শরীফ হীরা সহ নাসিক ও পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃপক্ষ।

এসময় মেয়র আইভী বলেন, সরকারী জমি উদ্ধারের ব্যাপারে আমি অনঢ়, কাউকে এক ইঞ্চি জমিও ছাড় দেয়া হবে না। রাস্তা ড্রেনের কাজ করার পরও যদি কোন জায়গা অবশিষ্ট থাকে তাহলে সেখানে গাছ লাগাবো। জনগন আমাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন তাদের উন্নয়ণে কাজ করার জন্য। কিন্তু কিছু লোক সরকারী জমি দখল করে রাখার কারণে এবং কেউ কেউ হাইকোর্টে গিয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করার কারণে চলমান উন্নয়ণ কাজ বাঁধাগ্রস্থ হচ্ছে। প্রয়োজনে আমি এক বার না দশ বার গিয়ে হাইকোটে ক্ষমা চাইবো কিন্তু কাউকে সরকারী জমি দখল করে কাজে বাধা দিতে দিব না।

তিনি আরো বলেন, এখানে আমার কোন বাড়ী-ঘর বা জমি নেই। আপনাদের জন্যই রাস্তা-ঘাট, ব্রীজ-কালভার্ট এবং ড্রেন নির্মাণ করছি। এগুলো আপনারাই ভোগ করবেন আমি করবো না। অতএব আপনারা সবাই আমাকে সহযোগিতা করুন।

0