প্লাজমা সংগ্রহ-প্রদান দেশে প্রথম বেসরকারি উদ্যোগে শুরু করেছি: খোরশেদ

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: দেশের প্রথম বেসরকারি উদ্যোগে করোনায় ও উপসর্গে মৃতদের দাফন কাফনের পাশাপাশি আক্রান্তদের চিকিৎসায় টেলিমেডিশিন, প্লাজমা ও অক্সিজেন সরবরাহের ব্যবস্থা করেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ ও তার টিম। এতে সুফল পেয়ে টিমের প্রতি কৃতজ্ঞতাও জ্ঞাপন করেছেন সুস্থ হয়ে উঠা অনেকেই।

শুক্রবার (৩ জুলাই) বিকাল পর্যন্ত খোরশেদ ও তার টিম মোট ১০৫৪৯ জনকে টেলিমেডিসিন সেবা, ৪৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীনকে প্লাজমা দিয়েছেন, ২৩ জনকে অক্সিজেন সেবা সরবরাহ করেছেন এবং করোনায় ও করোনার উপসর্গে মারা যাওয়া ৯৩ ব্যক্তির দাফন সৎকার করেছেন।

এ ব্যাপারে কাউন্সিলর খোরশেদ জানান, আমি আল্লাহকে খুশি করতে এসব করছি। কোন কিছু পেতে বা কোনকিছুর আশায় নয়। যতদিন শ্বাস থাকবে ততদিন আমি আমার কাজ অব্যাহত রাখবো। প্লাজমা সংগ্রহ ও প্রদান আমরাই দেশের প্রথম বেসরকারি উদ্যোগে শুরু করেছি। অক্সিজেন সেবায়ও আমরা প্রথম। পরবর্তীতে আমাদের দেখে মানুষ উৎসাহিত হয়েছে এবং বিভিন্ন বেসরকারি সংগঠন এতে এগিয়ে এসেছে। এভাবে সকলে এগিয়ে আসলে আমাদের কাজটি আরো সহজ হবে এবং আমরা আরো ভালোভাবে করোনা মোকাবেলা করতে পারবো। দাফন সৎকারেও আমরা প্রথমে এগিয়ে এসে সকলকে সাহস যোগাতে চেষ্টা করেছি। আগামী দিনেও আমরা এভাবেই আমাদের কার্যক্রম অব্যাহত রাখবো।

এ সেবামূলক কাজ করতে গিয়ে খোরশেদের টিম মেম্বাররা অনেকেই আক্রান্ত হয়েছেন। আইসোলেশনে থেকেছেন এবং পুনরায় সুস্থ হয়ে আবারো টিমে যোগ দিয়েছেন। এখনো তার দাফন টিম মেম্বার আনোয়ার হোসেন আক্রান্ত হয়ে আইসোলেশনে রয়েছেন। প্লাজমাগুলো তারা সংগ্রহ করছেন করোনায় আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে যাওয়া ব্যক্তিদের কাছ থেকে। সেগুলো প্রয়োজন অনুযায়ী রোগীদের বিনামূল্যে পৌছে দিচ্ছেন তারা। অক্সিজেন কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে ৫টি সিলিন্ডার ও ৩ টি অত্যাধুনিক অক্সিজেন মেশিন যা কিনা বাতাস থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে অক্সিজেন জেনারেট করে রোগীকে সরবরাহ করতে সক্ষম।

0