ফতুল্লায় কলেজ করার আশ্বাস দিলেন ডিসি

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ‘বড় পরিবেশে থাকলে মন বড় হয়। বড় পুকুর, মাঠ শিক্ষার্থীদের বড় হতে সাহস যোগায়। ফতুল্লা এলাকার মানুষের মন অনেক বড়। এই এলাকার এমপি শামীম ওসামনের মনও বড়।’

শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে ফতুল্লা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে মুক্তিযুদ্ধ কর্নার উদ্বোধন ও বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরুস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন। পরে শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরুস্কার বিতরণ করা হয়।

ডিসি জসিম উদ্দিন বলেন, একজনে তার বক্তি ফতুল্লায় কলেজ করার দাবি করেছে। আমি ১ থেকে ২ মাসের ভিতর এখানে কলেজ করে দেয়ার ব্যবস্থা করবো। এখানে কলেজ না থাকায় শহরে গিয়ে পড়া লেখা করলে অনেককে খপ্পরে পড়তে হয়। এখানে কলেজ হলে ছাত্র ছাত্রীদের অভিবাবকরা লাভবান হবেন। সন্তানদেরকে নিয়ে তাদের তেমন একটা টেনশন করতে হবে। একই সাথে সরকারি মহিলা, তোলারাম কলেজের অধ্যক্ষকে ভর্তি বিষয়ে অনুরোধ করতে হবে না।

এই জেলায় একেএম শামসুজ্জোহা ছিলেন বলে এখানে বঙ্গবন্ধু বার বার আসতেন। এই ভাষার মাসে মাকে ভালোবাসার মাধ্যমে দেশকে ভালোবাসতে হবে।

বিদ্যালরে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও জেলা মুক্তিযুদ্ধ কমান্ড মো. আলীর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিক, যুদ্ধকালীন কমান্ডার বীর মুক্তিযুদ্ধা মো. আমিনুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা সামিউল্লাহ মিলন, সদর উপজেলা মুক্তিযুদ্ধা কমান্ডার শাহজাহান ভূঁইয়া জুলহাস, পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আনোয়ার হোসেন, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এহসানুল হাসান নিপু, ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চ্যায়ারম্যান লুৎফর রহমান স্বপন, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সানোয়ার হোসেন জুয়েল প্রমূখ।

0