ফতুল্লায় ব্যবসায়ী সেলিম চৌধুরী ৬ দিন ধরে নিখোঁজ

ফতুল্লা করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় ব্যবসায়ী কামরুজ্জামান চৌধুরী ওরফে সেলিম চৌধুরী (৫২) গত ৬ দিন ধরে নিখোঁজ হলেও এখনো কোন সন্ধান মিলেনি। ব্যবসায়ীর সন্ধান না পাওয়ায় পরিবারের সদস্য হতাশা হয়ে পড়েছে।

এ ঘটনায় নিখোঁজ ব্যবসায়ী সেলিম চৌধুরীর স্ত্রী রেহেনা আক্তার রেখা বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি সাধারন ডায়েরী দায়ের করে।

জিডি সূত্রে জানা গেছে, ফতুল্লার বক্তাবলীর কানাইনগর এলাকার গার্মেন্টস ঝুট ব্যবসায়ী সেলিম চৌধুরী শিবু মার্কেট এলাকায় ভাড়াটিয়া বাসায় বসবাস করে শহরে ব্যবসা করে আসছিল। নারায়ণগঞ্জের অনেক ব্যবসায়ীর সাথে সম্পৃক্ত রয়েছে। গত ৩১ মার্চ সকালে বাসা হতে ব্যবসার কাজের উদ্দেশে বাহির হয়ে যায়। ঐদিন বেলা ১১টার দিকে সেলিম চৌধুরীর স্ত্রী রেখা মোবাইল ফোনে তাহার স্বামীর অবস্থান জানতে চাইলে সেলিম চৌধুরী জানিয়েছিল সে ফতুল্লার পঞ্চবটি মোড়ে ইষ্টার্ন ব্যাংকে রয়েছে। এরপর দুপুর ২টায় খাবার খাওয়ার জন্য ফোন করলে সেলিম চৌধুরীর ব্যবহ্নত মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়। সেলিম চৌধুরীকে বিভিন্ন স্থানে খোজাখুজি করে না পেয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় সাধারন ডায়েরী যার নং-(১৩৯ তারিখ-০৬-০৪-২০১৯ইং) দায়ের করে।

এদিকে পরিবার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সেলিম চৌধুরী দীর্ঘদিন ধরে ব্যবসা করে প্রচুর সম্পদের মালিক বনে যায়। ব্যবসা করতে গিয়ে বিভিন্ন ব্যবসায়ীর কাছে কয়েক লাখ টাকা দেনায় জর্জরিত হয়ে পড়ে। আর ব্যবসায়ী ভাবে সেলিম চৌধুরীর ধ্বস নামার ফলে মানসিক ভাবে চাপে পড়ে যায়। ব্যবসায়ী হিসাবে অনেক ব্যবসায়ী সেলিম চৌধুরীর কাছ থেকে কয়েক লাখ টাকা পায়। এছাড়া সেলিম চৌধুরীও অনেকের কাছে টাকাও পায়। আর যার কারনে গত ৩১ মার্চ ব্যবসায়ী সেলিম চৌধুরী নিখোঁজের পিছনে ব্যবসায়ীদের সাথে দেনা পাওনা নিয়ে কোন বিরোধ রয়েছে কিনা তা নিয়ে পরিবারের সদস্য চিন্তিত হয়ে পড়েছে। নিখোঁজ ব্যবসায়ী সেলিম চৌধুরীর সন্ধান পেতে প্রশাসনের সদয় দৃষ্টি কামনা করেন।

জিডির তদন্তকারী অফিসার ফতুল্লা মডেল থানার পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মামুন আল আবেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিখোঁজ ব্যবসায়ীর সন্ধানে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে।