ফতুল্লা ও সোনারগাঁয়ে সড়ক অবরোধ করে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বকেয়া বেতনের দাবিতে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা ও সোনারগাঁয়ে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে তিনটি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা। এসময় শ্রমিকরা প্রায় দুই ঘন্টা সড়ক ও মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে।

বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) সকালে সদর উপজেলার ফতুল্লা থানার পোস্ট অফিস চত্বর ও পুলিশ লাইন এলাকায় লকডাউন ভঙ্গ ও মহামারি করোনার ভয় উপেক্ষা করে হামিদ ফ্যাশন ও টি এস স্পোর্টস লিমিটেড নামের দুইটি পোশাক কারখানার প্রায় তিন শতাধিক শ্রমিক ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কে অবস্থান নেয়।

এসময় তারা রাস্তায় ইটের স্তুপ সিমেন্টের পিলার ফেলে ব্যারিকেড দিয়ে অবরোধ সৃষ্টি করে। শ্রমিকরা এই সড়কে দুই ঘন্টাব্যাপী অবস্থান নিয়ে দুই মাসের বকেয়া বেতনের দাবিতে বিক্ষোভ করেন। পরে পুলিশ মালিকদের সাথে কথা বলে সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দিলে শ্রমিকরা তাদের অবরোধ তুলে নেন।

হামিদ ফ্যাশনের শ্রমিকদের দাবি, শতভাগ রফতানিমুখী এই পোশাক কারখানাটি একজন প্রতিমন্ত্রীর মালিকানায় পরিচালিত হচ্ছে। তবে প্রতিমন্ত্রীর এই কারখানায় চলতি মাসসহ তিন মাসের বেতন বকেয়া থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন শ্রমিকরা। তারা দ্রুত বকেয়া বেতন পরিশোধের দাবি জানান।

টি এস স্পোর্টস লিমিটেড এর বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা জানান, করোনা ভাইরাসের সংক্রমনের ইস্যুতে মালিকপক্ষ তাদের বকেয়া বেতন পরিশোধ না করেই ৩০ মার্চ কারখানার গেইটে লে অফ নোটিশ সাঁটিয়ে কারখানা বন্ধ ঘোষণা করেন। পরবর্তী নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত শ্রমিকদের কারখানায় আসতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। করে নাগাদ কারখানা খোলা হবে বা তাদের বেতন পরিশোধ করা হবে সে ব্যাপারে কিছুই জানানো হয়নি। এ কারণে বেতনের ব্যাপারে অনিশ্চয়তায় ভুগছেন শ্রমিকরা। যার করাণে বাধ্য হয়েই তারা রাস্তায় নামতে বাধ্য হয়েছেন বলে জানান তারা।

এদিকে, একই সময়ে সোনারগাঁ উপজেলার ত্রিবরদি এলাকায় ইউবামিট নামে একটি পোশাক কারখানায় চার মাসের বকেয়া বেতন পরিশোধের দাবিতে ও শ্রমিক ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক প্রায় দেড়ঘন্টা অবরোধ করে রাখে বিক্ষুদ্ধ শ্রমিকরা। সেখানেও পরবর্তীতে শ্রমিকরা পুলিশের আশ্বাসে তাদের অবরোধ তুলে নেন।

0