ফেসবুকে অপপ্রচার: স্বামী-স্ত্রী রিমান্ডে

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ফতুল্লা থানার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের একটি মামলায় স্বামী-স্ত্রীকে ১ দিনের রিমান্ডের আদেশ দিয়েছে বিজ্ঞ আদালত।

রিমান্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- ফতুল্লা থানার পূর্ব ইসদাইর এলাকার আ. হাই মোল্লার ছেলে মো. মতিন মোল্লা (৪০) তার স্ত্রী ফারজানা আক্তার পলি (৩২)।

রোববার (২৫ অক্টোবর) সকালে আসামিদের ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে উঠায় পুলিশ। পরে শুনানি শেষে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নুরুন্নাহার ইয়াসমিন এর আদালত এ রিমান্ডের আদেশ দেন।

এর আগে, ২০ অক্টোবর আসামিদ্বয় বিজ্ঞ আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। পরে বিজ্ঞ আদালত আসামিদের কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

রিমান্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে কোর্ট পুলিশ এএসআই সাইফুল বলেন, আসামিদ্বয়কে ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে উঠালে বিজ্ঞ আদালত আসামিদের ১ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, উক্ত আসামীদ্বয় তাদের নিজ বাড়ীতে অবস্থান করে উভয় আসামী পরস্পর যোগসাজসে গত ২৩ মার্চ দুপুর ১ টার সময় তাদের ব্যবহৃত মোবাইলের ফেসবুক আইডি দ্বারা অত্র মামলার বাদী তাজুল ইসলাম রাজিব ও তার পিতাকে বিরক্ত অপমান, অপদস্থ ও হেয় প্রতিপন্ন করার উদ্দেশ্য বাদীর ব্যবসা প্রতিষ্টান “আজাদ রিফাত ডাইং মালিকের কু-কিত্তির ইতিহাস” এই  শিরোনামে একটি মিথ্যা বানোয়াট, কুরুচিপূর্ন ও অপ্রচারমূলক লেখা প্রকাশ করে।

আসমীদ্বয় ধারাবাহিক ভাবে অত্র মামলার বাদী ও তাহার পিতাকে সমাজে হেয়প্রতিপন্ন ও মান সম্মান ক্ষুন্ন করার লক্ষ্যে তাদের ব্যবহৃত মোবাইল এর ফেইসবুকের মাধ্যমে গত ৪ এপ্রিল রাত্র ১ ঘটিকার সময়, ৬ মে পৌনে ১ ঘটিকার সময় ও ১৩ অক্টোবর সন্ধ্যা সাড়ে ৭ ঘটিকার সময় বাদী ও তাহার পিতার নামে অপমান জনক, মানহানিকর, আপত্তিকর, আক্রমনাত্বক, মিথ্যা অপবাদ মূলক ও বিরক্তিকর তথ্য প্রচার করে।

এই মামলার বাদী ও তাহার পিতা নারায়ণগঞ্জের প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী। তাহারা আদৌও কোন অবৈধ কাজের সহিত জড়িত নাই। সনাম ধন্য ব্যবসায়ী হিসাবে নারায়নগঞ্জে পরিচিত। হয়তো বা উক্ত আসামীদ্বয় কাহারও কর্তৃক লাভবান হওয়ার হীন মানষে বাদী ও তাহার পিতার মান সম্মান ক্ষুন্ন করার জন্য ফেইসবুকে বিভিন্ন মন্তব্য লিখিয়া অপপ্রচার করেছে। আসামীদ্বয় এইরূপ একজন প্রতিষ্ঠিত
ব্যবসায়ীর নামে ফেইসবুকে খারাপ ও অপমান জনক কথাবার্তা লিখিয়া অপপ্রচার করায় অন্যান্য ব্যবসায়ীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, এই ঘটনার মূল হোতা এবং কে কে তাদের অপপ্রচারে সহযোগীতা করছে। ঐ সকল ব্যক্তির নাম ঠিকানা উদঘাটন সহ ইতিপূর্বেও অপর কোন ব্যবসায়ীদের বা সমাজে উচ্চপই ব্যক্তিদের নামে ফেইসবুকে কু-মন্তব্য লিখিয়া অপপ্রচার করেছে কি না? তার বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করার জন্য আসামীদ্বয়কে পুলিশ রিমান্ডে আনিয়া জিজ্ঞাসাবাদ একান্ত প্রয়োজন বলে আসামিদ্বয়কে ১ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হচ্ছে।

0