ফেসবুক বন্ধুর হাতে অপহরণ, আটক ৪

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ফেসবুকে রুবেলের সাথে পরিচয় হয় মিঠুনের। প্রায়ই ফেসবুকে কথা-বার্তা হতো। দুই জনের মধ্যে হয় চরম বন্ধুত্ব। মিঠুনকে একদিন দেখা-সাক্ষাতের কথা বলে রুবেল। বন্ধুর ডাকে সারা দিয়ে রূপগঞ্জ থেকে সিদ্ধিরগঞ্জে যায় মিঠুন। কিন্তু দেখামাত্রই রুবেলের হাতে অপহৃত হলো মিঠুন। আশা ছিল ‘বন্ধু করবে কত কী আপ্যায়ন’। আপ্যায়িত হয়েছে সে ঠিকই কিন্তু বন্দী দশায়।

সোমবার (৮ জুলাই) সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুড়ি আরকে পার্ক এলাকায় এভাবেই ‘ফেসবুক বন্ধুদের’ দ্বারা অপহৃত হয় মো. মিঠুন (২৪) নামে এক যুবক। সে রূপগঞ্জ উপজেলার বরালো এলাকার সূর্যত আলীর ছেলে।

জানা গেছে, অপহরণকারীরা মিঠুনের পরিবারের কাছে মুক্তিপণ আদায় করে মিঠুনকে ছেড়ে দেয়। ছাড়া পেয়ে মিঠুন ৮ জুলাই রাতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করে। পরবর্তীতে পুলিশ ৮ জুলাই জালকুড়ি থেকে ওই অপহরণকারীদের মধ্যে ৪ জনকে আটক করে। এসময় মুক্তিপণ আদায়ের ৪০ হাজার টাকার মধ্যে ১৫ হাজার টাকা ও ৭টি মোবাইল ফোন ও একটি রূপার চেইন উদ্ধার করে পুলিশ। আটককালীন সময়ে মিঠুনের সেই ‘ফেসবুক’ বন্ধু রুবেল পালিয়ে যায়। তার প্রকৃত নাম সুজন।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক শহীদুল আলম জানান, রূপগঞ্জ উপজেলার মিঠুনের সাথে ফেসবুকে সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুড়ি এলাকার রুবেল ওরফে সুজনের সাথে বন্ধুত্ব হয়। প্রায়ই তারা ফেসবুকে কথা বলতো। একে অপরকে বেড়াতে আসোর দাওয়াত দিত। সেই সূত্র ধরে, সোমবার দুপুরে মিঠুন চালকুড়ি বাসস্ট্যান্ডে আসে। সেখান থেকে রুবেল তার সহযোগী ইমনের মাধ্যমে মিঠুনকে জালকুড়ি আরকে পার্কের পিছনে নিয়ে আসে। সেখানে রুবেল ও তার ৪ সহযোগী মিঠুনকে আটকে রেখে মারধর করে তার সাথে থাকা টাকা-পয়সা, মোবাইল ও একটি রূপার চেইন ছিনিয়ে নেয়। পরে রুবেল তার মোবাইল থেকে মিঠুনের ভগ্নিপতির কাছে ফোন করে মুক্তিপণ হিসেবে ৮০ হাজার টাকা দাবী করলে তিনি বিকাশের মাধ্যমে রুবেলকে ৪০ হাজার টাকা দেয়। টাকা পেয়ে তারা মিঠুনকে ছেড়ে দেয়। ছাড়া পেয়ে মিঠুন থানায় এসে অভিযোগ করলে অভিযান চালিয়ে ৪ অপহরনকারীকে আটক করা হয়।

0