বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকীতে না.গঞ্জ আইনজীবী সমিতির দোয়া মাহফিল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ; জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতি।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা বার ভবনে এই আয়োজন করা হয়।

নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এড. মোহাম্মদ হাসান ফেরদৌস জুয়েলের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই, সাধারণ সম্পাদক এড. আবু হাসনাত মো. শহীদ বাদল (ভিপি বাদল), মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শামীম ওসমান বলেন, আমার মনে হয় নারায়ণগঞ্জে রাজনীতির চেয়ে অপরাজনীতি বেশি হচ্ছে। কিছু লোক বড় বড় পদ মাতিয়ে নিয়েছে। জেলা, মহানগর ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কাছে বলতে চাই সামনে সময় খুল ভাল না। আমার কারণে যদি দল ক্ষতিগ্রস্ত হয়, প্রয়োজনে আমাকে দল থেকে বের করে দিন। সবাই প্রস্তুতি নেন। এলাকায় এলাকায় ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে যে কোন্দল আছে তার নিরসন করুন। দলকে সুশৃঙ্খল করুন। আজ সবাই মিলে দল করলে হয়ত নেত্রীকে বলতে পারতাম পচাত্তরের মত কিছু হলে, আমরা কিছু করতে পারব।

শামীম ওসমান আরও বলেন, শোক দিবসের আলোচনা সভায় জাতির পিতার কন্যা কিছু কষ্টের বহিঃপ্রকাশ করেছেন। বলছেন, এত বড় আওয়ামীলীগ সেদিন কেউ প্রতিবাদ করল না কেন। বঙ্গবন্ধুর লাশ সেখানে পড়ে বইল। আমার পিতার লাশ কেউ ধরতে আসেনি। রিলিফের কাপড় দিয়ে বঙ্গবন্ধুকে কবরে শায়িত করা হয়। তিনি তার মৃত্যুর পরও কিছু হবে তিনি আশা করেন না। আমার প্রশ্ন বঙ্গবন্ধু কন্যার এই আক্ষেপ, আমরা আসলে করছি কী। বক্তব্য দিচ্ছি সবাই যেন আমরা পৃথিবী জয় করে ফেলছি। আমরা আজ কী করছি স্মরন, শোক সভা, খাওয়া দাওয়ার আয়োজন। এগুলো থাকবে তো, যদি নেত্রীর ওপর আঘাত আসে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করছি না পদ পদবি বাগিয়ে নিচ্ছি এটা আমাদের উপলব্ধি করতে হবে।

ভিপি বাদল বলেন, ১৫ আগস্টের কাল রাত্রিতে,যেভাবে জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করা হয়েছে, পৃথিবীর আর কোথাও, কোনো নেতাকে এভাবে হত্যা করা হয়নি। ওরা কারা যারা বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করেছিল। ওরা কারা যারা নাকি এদেশের স্বাধীনতাকে মেনে নিতে পারে নাই?

এড. খোকন সাহা বলেন, সারা দেশে সংস্কৃতিক জোট আছে, তারা বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী, জন্মবার্ষিকী সব কিছুই পালন করে। কিন্তু শুধু নারায়ণগঞ্জেই সংস্কৃতিক জোটের নেতৃবৃন্দরা মানুষের চরিত্র হননের নিকৃষ্ট রাজনীতি করে। ছোট্ট একটা বাচ্চা ছেলেকে হত্যা করা হয়েছে, সেটা নিয়েও রাজনীতি। আমরাও চাই বাচ্চা ছেলেটির হত্যার বিচার হোক। তবে তাই বলে বাচ্চা শিশুটির লাশের উপর রাজনীতি, এটা উচিত না।

নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রবিউল আমীন রনির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এড. সামসুল ইসলাম ভুইয়া, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজাম, নারায়ণগঞ্জ আদালতের সাবেক পিপি এড. ওয়াজেদ আলী খোকন, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এড. মাহমুদা মালা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জিএম আরমানসহ জেলা আইনজীবী সমিতির অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

পরে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।