বন্দরে সরকারি রাস্তা দখল করে স্থাপনা তৈরিতে বাধা, এলাকায় উত্তেজনা

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমানের দেয়া বরাদ্ধে, তৈরি হয়েছে বন্দর উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডে সরকারি হালটের উপর রাস্তা। এ রাস্তার বিলাশ অংশ দখল করে পাকা স্থাপনা নির্মাণ করে, একই এলাকার নূর ইসলামের ছেলে সোহেল। এলাকাবাসী সরকারি রাস্তা দখলে বাধা দিলে সোহেল ৫০/৬০ জনের একটি দল এনে এলাবাকাসীকে হুমকি দেয়। এ নিয়ে উত্তেজনা দেখা দেয়।

এ ঘটনাটি ঘটেছে বন্দর উপজেলার লক্ষণখোলার পাতাকাটা এলাকায়।

পরে মুছাপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাকসুদ হোসেন তার প্রতিনিধি পাঠিয়ে স্থাপনা নির্মাণে বাধা দেয় এবং পরিস্থিতি শান্ত করেন।

এ বিষয়ে বন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শুক্লা সরকারকে জানালে, তিনি তাৎক্ষনিক এসিল্যান্ডকে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেন। এসিল্যান্ড সাথে সাথে মুছাপুর তহসীলকে পাঠিয়ে সকল ধরণের কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন এবং কাগজপত্র নিয়ে উপজেলা প্রশাসনের সাথে বসার নির্দেশ দেন।

এ ব্যাপারে রাস্তা দখলকারী সোহেলের পিতা নূর ইসলাম বলেন, আমরা আমাদের নিজস্ব জায়গায় দেয়াল নির্মাণ করছি। সরকারি রাস্তা দখল করিনি।

মুছাপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাকসুদ হোসেন জানান, এমপি সেলিম ওসমানের বিশেষ বরাদ্ধে সরকারি হালটের উপর দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করেছি আর এ রাস্তা দখল করে সোহেল পাকা দেয়াল নির্মাণ করেছে। বিষয়টি আমার নজরে এলে আমি কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেই। তারপরেও সোহেল আমার নির্দেশ অনাম্য করে দেয়াল নির্মাণ করে। আমি সরকারি সম্পদ রক্ষায় যা কিছু করার তাই করব। এ ব্যপারে স্থানীয় মেম্বার মান্নান জানান, অনেক কষ্ট করে এলাকাবাসীর স্বার্থে রাস্তা নির্মাণ করেছি। বর্তমানে রাস্তাটি কাঁচা। আগামীতে নতুন বরাদ্ধ এলে তা পাকা করা হবে। আর এ সময় অবৈধ ভাবে সরকারি রাস্তা দখল করে পাকা দেয়াল নির্মাণ করা সোহেলকে আমরা বাধা দিলে, আমাদের মামলার হুমকি দেয়।

বন্দর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শুক্লা সরকার বলেন, বিষয়টি আমি জানার পর তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নিয়েছি। দখলদারদের কাগজপত্র নিয়ে উপজেলা আসতে বলা হয়েছে। প্রয়োজনে রাস্তা মেপে ও জনস্বার্থে যতটুকু রাস্তা প্রয়োজন তা নির্ধারণ করে দেয়া হবে। এলাকাবাসীর অভিযোগ সরকারি হালটের উপর দিয়ে নির্মাণ হওয়া রাস্তাটি দখল করে দেয়াল নির্মাণ করতে গেলে আমরা বাধা দেই। কিন্তু হোসেল মিয়া বাধা উপেক্ষা করে দেয়াল নির্মাণ করতে থাকে। নিরুপায় হয়ে চেয়ারম্যান ও প্রশাসনকে অবগত করি। জনস্বার্থে এ রাস্তার দখল মুক্ত করার লড়াই আমরা চালিয়ে যাব।

0