বন্ধের দিনে এ কী করে যুবকেরা!

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: শুক্রবার, সাপ্তাহিক ছুটি। অন্যান্য দিনের তুলনায় এদিনটি চাকুরীজীবীদের বিশ্রাম নেয়া ও পরিবারের সাথে সময় দেয়ার অপূর্ব সময়; সেই সাথে চমৎকার আমলের দিন-জুম‘আবার।

কিন্তু এমনই দিনে সকাল সকালেই ঘর থেকে শাবল নিয়ে বেরুলেন বন্দরের সজিব। এলাকার কিছু যুবকদের নিয়েই রাস্তার ড্রেনে বন্ধ থাকা ছিদ্রগুলো খুলতে শুরু করলেন। প্রচন্ড এ গরমে ঘাম ঝড়িয়ে মনোযোগ দিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। একটি একটি করে প্রায় ২‘শটিরও বেশি ছিদ্র খুলে ফেলে যুবকের দল, সময় লাগলো মাত্র ২ ঘন্টা।

শুক্রবার (১৪ জুন) বন্দরের শাহি মসজিদ খালপারের ঘটনা এটি। স্থানীয় যুবকেরা মিলে সকালে এই জন সেবামূলক কাজে নেমে পড়ে। এই কাজটির মূল উদ্যোগ নেন সজিব খান, পেশায় যমুনা টিভির ভিডিও এডিটর। স্থানীয় যুবকদের সাথে পরামর্শ করে শুক্রবার এলাকার বাইতুল ফালাহ মহিলা মাদ্রাসা সড়কের ড্রেনে বন্ধ থাকা ছিদ্রগুলো খুলে দেবার সিদ্ধান্ত নেন।

এই কাজে আরও অংশ নেয় রাব্বি, তানভির, নাহিদ, সিফাত, সরন, হৃদয়, আলিফ।

লাইভ নারায়ণগঞ্জের সাথে কথা হয় সজীব খানের। কেন এমন উদ্যোগ নিলেন তিনি- প্রশ্নে তিনি বলেন, আসলে এ সড়কে বৃষ্টির সময়ে জলাবদ্ধতা একটু পুরোনো সমস্যা। ড্রেনের ছিদ্র বন্ধ থাকার কারণে পানি ভালোভাবে নিষ্কাশিত হয় না। আবার, গত কদিন ধরে পত্র-প্রত্রিকায় বেরিয়েছে, ড্রেনের ছিদ্র বন্ধ থাকায় বিভিন্ন দাহ্য গ্যাস জমে বিষ্ফোরণ হয়। এই ধরণের সমস্যায় যাতে আমার পরিবার, আমার প্রতিবেশীর, এলাকাবাসীর পড়তে না হয় তাই নিজে থেকেই এ কাজ করার ইচ্ছে জাগে। আমি আমার এলাকার ভাইদের জানালে তারাও উৎসাহিত হয়।

তিনি বলেন, আমাদেরই তো এলাকা। আমরাই যদি এলাকায় ভালো কাজের উদ্যোগ না নেই, কে নেবে? অল্প করে হলেও আমরা এলাকার নানা ভোগান্তি দূর করার চেষ্টায় থাকবো।

যুবক সমাজের উদ্দেশ্যে সজিব বলেন, নারায়ণগঞ্জের প্রতিটি ছেলে-মেয়ে যদি এলাকার বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্য চেষ্টা করে তবে জনদুর্ভোগ কমিয়ে আনা সম্ভব। ছোট ছোট পদক্ষেপে শান্তির পরিবেশ পাওয়া যাবে।

তিনি আরও জানান, আগামী শুক্রবারেও এলকার রাস্তায় ড্রেনের ছিদ্র বন্ধ করার কাজ করবে যুবকরা।

0