বাঁচানো গেল না সেই অজ্ঞাত নারীকে, শেষ যাত্রায়ও পাশে টিম খোরশেদ

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: শরীরে কোন পোষাক ছিল না, চাদরও মলমূত্রের মাখমাখি অবস্থা; এমন ভয়াবহ ডাইরিয়ায় আক্রান্ত ৬৫ বছর বষয়ী অজ্ঞাত নারী পড়ে ছিল রাস্তায়। ২ দিন চলে গেছে। কিন্তু এগিয়ে আসেনি কোন পথচারী কিংবা বৃত্তশারীরা। সেই খবর পেয়ে ছুটে এসেছিলেন টিম খোরশেদ। তুলে নিয়ে ভর্তি করান হাসপাতালে।

৮ দিন পর আজ (২৫ নভেম্বর) অজ্ঞাত সেই নারীর মৃত্যু হয়েছে। সকাল ১০ টায় নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন। (ইন্না-লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহে রাজেউন)।

পরে বিধি মোতাবেক সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী ও সিটি করপোরেশন থেকে অজ্ঞাত হিসাবে দাফনের অনুমতি নিয়ে করা হয় দাফনও।

১৭ নভেম্বর সন্ধ্যায় কাউন্সিলর খোরশেদের ফেইসবুক মেসেঞ্জারে ফটো সাংবাদিক মিলন বিশ্বাস হ্রদয় কয়েকটি ছবি পাঠায়। ছবি গুলো দেখে টিম খোরশেদ এর স্বেচ্ছাসেবকরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত। পরে মডেল গ্রুপের ফ্রী এম্বুলেন্সে করে ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে নেওয়া হয় নারীকে। সদর থানা পুলিশকে অবহিত করে সিভিল সার্জনের উপস্থিতিতে ভর্তি করা হয়।

খোরশেদ জানান, আজ সকাল ১০ টায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ওই নারীর মৃত্যুর খবর দেন। এরপর ওসি ইনচার্জ আসাদুজ্জামানের নির্দেশে সুলতান করেন এসআই নুরে আলম। নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন থেকে অজ্ঞাত হিসাবে দাফনের অনুমতি নিয়ে পাঠানটুলী কবরাস্তানে দাফন করেন।

এ পুরো কাজে ৮ ঘন্টার চেষ্টা ও ১০ জন স্বেচ্ছাসেবক সারাদিন অভূক্ত থেকে ও টিম খোরশেদ এর নগদ টাকা ব্যায়ে বাদ মাগরিব সেই অজ্ঞাত মা’কে দাফন সম্পূর্ণ করতে সক্ষম হয়েছি।

টিমে ছিলেন আনোয়ার মাহমুদ বকুল, জয়নাল আবেদীন, রোজিনা আক্তার, কাকলী বেগম, টিপু সুলতান, হাফেজ শিব্বির আহমেদ, হাফেজ রিয়াদ, আনোয়ার হোসেন, নাইম ও সফিউল্লাহ রনি।

0