বাবা-মা-ভাই সকলের স্মৃতি বন্দরে রেখে গেলাম: সেলিম ওসমান

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান বলেছেন, আমার বাবা, আমার মা, আমার ভাই তাদের সকলের স্মৃতি বন্দরে রেখে গেলাম। জানি না কত দিন বেচে থাকবো, কিন্তু যত দিনই বেচে থাকি না কেন আমি চেষ্টা করবো বন্দরে রয়ে যাওয়া সকল কাজ গুলো যাতে করে মরতে পারি। আমরা প্রত্যেকটি ইউনিয়নে একটি করে স্কুল তৈরি করতে সক্ষম হয়েছি। আমি কোন একদিন মারা যাবো, আমার নাতিরা আসবে। তখন যাতে কেউ শিক্ষা থেকে বঞ্চিত না হয়।

মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক স্বাধীণতার পুরস্কারপ্রাপ্ত (মরোনত্তর) একেএম সামসুজ্জোহার সহধর্মিনী ভাষা সৈনিক নাগিনা জোহার ৫মতম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে রবিবার (৭ মার্চ) বিকাল ৩টায় বাগদোবাড়িয়া নাগিনাজোহা উচ্চ বিদ্যালয়ে আয়োজিত আলোচনা সভা, মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সেই মিলাদ ও দোয়ানুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান।

সেলিম ওসমান আরও বলেন, বাংলাদেশকে একটি শিক্ষিত জাতি বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা ইনশাল্লাহ ওরাই বানাতে পারবে। আমরা স্বাধীনতার পর থেকে যুদ্ধ করেই যাচ্ছি, আমাদের পরবর্তি প্রজন্মকে এগিয়ে নিয়ে যেতে। আমি জানি এখানে অনেকেই দীর্ঘদিন পরে আমাকে দেখার জন্য এসেছে। করোনাকালে বা কোন সময় আমি যদি আপনাদের কাছে কোন ভুল ত্রুটি করে থাকি তাহলে দয়া করে আমাকে ক্ষমা করে দিবেন। আপনাদের সকলের কাছে আমি আমার মা, বাবা, ভাইয়ের জন্য দোয়া প্রার্থনা করছি।

সেলিম ওসমান আবেগ প্রকাশ করে বলেন, আমার যখন খারাপ লাগে আমার বাবার জন্য তখন আমি শামসুজ্জোহা স্কুলে চলে যাই। যখন আমার মায়ের কথা মনে পরে তখন আমি গোপনে হলেও আমার মায়ের নামের স্কুলটাতে চলে যাই। আমি বিশ্বাস করি এত গুলো মানুষের মাধ্যমে আমি দোয়া পাই। আমি ছোট বেলা থেকেই আমার বড় ভাইয়ের সাথে বন্ধুর মতো ছিলাম, তাই যখনই তার কথা আমার মনে পরে আমি তার স্কুলে চলে যাই। আপনারা আমাকে যে সুযোগটা করে দিয়েছেন তার জন্য আমি আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ।

মদনপুর ইউনিয়ণ পরিষদের চেয়ারম্যান এমএ সালামের সঞ্চালনায় আলোচনা সভা ও দোয়ায় উপস্থিত ছিলেন- বন্দর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শুক্লা সরকার, নারায়ণগঞ্জ চেম্বারস অব কমার্স’ সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল, বন্দর উপজেলা আ’লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা এমএ রশিদ, কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন প্রধান, ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাসুম আহমেদ, মুছাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাকসুদ হোসেন, বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিন আহমেদ, মহানগর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন সাজনু, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জুয়েল হোসেন, মহানগর শ্রমিকলীগের সাধারন কামরুল হাসান মুন্না, নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আজিজুর রহমান আজিজ, সাধারন সম্পাদক আশরাফুল ইসমাঈল রাফেল, মহানগর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক হাসনাত রহমান বিন্দু, যুবলীগ নেতা খান মাসুদ, বাগদোবাড়িয়া নাগিনাজোহা উচ্চ বিদ্যালয়ে সভাপতি খায়রুল ইসলাম প্রমূখ।

0
,