‘বাবুল স্টোর’ ভেঙ্গে দেওয়ায় কুট্টি মেম্বারকে হত্যা, আসামীর দায় স্বীকার

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ২ বছর আগে ‘বাবুল স্টোর’ নামক দোকান বসানোকে কেন্দ্র করে স্থানীয় লোকজনের সাথে বিরোধ দেখাদেয় সাদ্দাম হোসেনের। তখন বিরোধ কমাতে দোকানটি ভেঙ্গে দিয়েছিলো কুট্টি মেম্বার। দীর্ঘদিন পর সে দোকান ভাঙ্গার প্রতিশোধ নিতে কুট্টি মেম্বারকে কুপিয়ে হত্যা করে সাদ্দাম হোসেন।

বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) বিকালে আসামী সাদ্দাম হোসেনে জবানবন্দীর বরাদ দিয়ে এ তথ্য নিশ্চিত করেন জেলা পুলিশ। জেলা পুলেশের দাবি, ‘ দোকান ভাঙ্গা এছাড়াও এলাকায় মাদক, আধিপত্য বিস্তারসহ অন্যান্য কারণও ছিলো কুট্টি মেম্বারকে হত্যার পিছনে।

এর আগে সকাল ৬টায় রূপগঞ্জ থানার ওসির নেতৃত্বে তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে চনপাড়া বস্তি থেকে আসামী সাদ্দাম হোসেনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃত আসামী সাদ্দাম হোসেন রূপগঞ্জ উপজেলার চনপাড়া মোড় এলাকার এনায়েত হোসেনের ছেলে।

গত ২৬ জুন ভোর সাড়ে ৬টায় প্রতিদিনের ন্যায় মেম্বার বিউটি আক্তার কুট্রি প্রাতঃভ্রমন করাকালীন তাকে একা পেয়ে আসামী সাদ্দামসহ অপরাপর আসামীরা পরষ্পর যোগসাজসে পূর্ব পরিকল্পনায় চাপাতি ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে হামলা করে। এ ঘটনায় ঘটনা স্থলেই মৃত্যু হয় কুট্টি মেম্বারের।

এবিষয়ে পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ বলেন, অপরাধীদের আইনের আওতায় আনাই পুলিশের কাজ। নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ মামলার রহস্য উদঘাটন করতে সক্ষম হয়েছে এবং অপরাধীদের আইনের আওতায় আনা সম্ভব হয়েছে।

এর আগে বুধবার রাতে বিউটি আক্তার কুট্রি হত্যার ঘটনায় নিহতের মেয়ে পারভীন আক্তার বাদী হয়ে ১১ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ৬ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করে।

0