বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে সিদ্ধিরগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনাসহ নানা আয়োজন

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে সিদ্ধিরগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা প্রদান, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ নানা আয়োজন করা হয়েছে। ২৯ ডিসেম্বর ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে সিদ্ধিরগঞ্জের চৌধুরীবাড়ি সংলগ্ন এলাকায় এ আয়োজন করা হয়।

৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা ও চৌধুরীবাড়ী ব্যবসায়ী এসোসিয়েশনের সভাপতি মো.মহসিন ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট খোকন সাহা। এছাড়াও অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি চন্দন শীল, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো.মজিবুর রহমান, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, উপ-প্রচার সম্পাদক ইফতেখার আলম খোকন, মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইসরাত জাহান স্মৃতি, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মো.জুয়েল হোসেনসহ আরও অনেকে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট খোকন সাহা বলেন, আজ আমি শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি শতাব্দীর মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। স্মরণ করছি সকল শহীদদের একইসাথে আমার নেতা একেএম শামসুজ্জোহাকে। শামসুজ্জোহা সৎ মানুষ ছিলেন, তার মতো নিষ্ঠাবান কর্মীবান্ধব নেতা দেখি নাই। কর্মীদের ফেলে রেখে যান নাই। সততার কিংবদন্তি শামসুজ্জোহা মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে উনার অবদানকে আজ আমি স্মরণ করছি। ১৯৭১ সালে যুদ্ধ বিধ্বস্ত নারায়ণগঞ্জকে নিয়ে শামসুজ্জোহা কাজ করেছিল । তৎকালে কিছু কিছু আওয়ামী লীগ নেতার জন্য আওয়ামী লীগের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়েছিল। কিছু কিছু নেতা কলাগাছ থেকে বটগাছ হয়েছিল, তাদের নাম বলতে চাই না। শততার কিংবদন্তি জোহা সাহেব মারা গেছে। মৃত্যুর সময় ১টা বাড়িতে রেখে গেছেন, তাও সেই বাড়িটা ব্যাংকে ছিল। জিয়াউর রহমান সাহেব সেটা নিলাম করেছিল। অন্যান্য নেতাদের মতো ৫, ৭, ১০টা বাড়ি করেন নাই। পরবর্তীতে তার পুত্র নাসিম ওসমান উন্নয়ন করেছে, বর্তমানে সেলিম ওসমান করছেন, নিজের শত কোটি টাকা ব্যয় করে কাজ করছেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বাবু চন্দন শীল বলেন, জাতির জনকের ভাস্কর্য ভেঙ্গে ফেলার দুঃসাহস দেখানো হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিকরা জীবিত আছে, এই অপশক্তিদের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে দাঁতভাঙ্গা জবাব দেয়া হবে। পাকিস্তানীদের নাকে খর দেয়া হয়েছিল, এবার তাদের শিকড় উপড়ে ফেলা হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল বলেন, ভাই আপনার ডান পাশে যে মানুষ তার পাশে ভালো ব্যবহার করেন। বাম পাশে যে মা-বোন আছে তার সাথে ভালো ব্যবহার করেন। এজন্য করবেন মানুষ মানুষের জন্য। আজকে যদি মানুষের জন্য না করেন, আল্লাহ আপনার জন্য করবেন না। ৪৯ পার্সেন্ট মানুষকে ভালোবাসেন, ৫১ পার্সেন্ট নিজের পরিবারকে ভালোবাসেন, আল্লাহ দুই হাত ভরে দিবেন ইনশাআল্লাহ। আমি হেলাল দরিদ্রদের শিক্ষা ব্যবস্থা, পতিতালয় উচ্ছেদ শামীম ভাইয়ের নেতৃত্বে, অসহযোগ আন্দোলনসহ নারায়ণগঞ্জের অনেক কাজ করেছি। পরিণামে গুলি খেয়েছি, জেল খেটেছি।

0
, ,