বিদায় বেলায় ডিসি রাব্বি মিয়া ‘আমার কথা মনে করতেই হবে’

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ‘সেলিম ওসমান সাহেব, শামীম ওসমান সাহেব থাকার পরেও মহাম্মদ আলী ভাই সব সময় বলতো আমরা এসেছি জেলা প্রশাসকের বক্তব্য শুনতে। শামীম ওসমান এত সুন্দর বক্তব্য রাখেন। সেই শামীম ওসমানই বলতেন আমাদের জেলা প্রশাসক, আমার ছোট ভাই অসাসাধারণ বক্তব্য দেয়। এই যে সম্মান, এ সম্মান আমি কি দিয়ে পরিশোধ করবো।’

শনিবার (২২ জুন) দুপুরে জেলা প্রশাসকের সভা কক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় একথা বলেন বিদায়ী জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়া। এসময় পাশেই বসে ছিলেন স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক মো. আলতাব হোসেন।

এছাড়াও মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক জেলা কমান্ডার মোহাম্মদ আলী, সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার শাহজাহান ভূঁইয়া জুলহাসসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

রাব্বি মিয়া বলেন ‘আমার বাবার বয়সী, চাচার বয়সী বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ। যারা দেশ স্বাধীন করেছেন। যাদের বদলতে আজ আমরা জেলা প্রশাসক হয়েছি, তাদের এক হাজারের মতো বীর মুক্তিযোদ্ধার সমনে এক ঘন্টা বক্তব্য দিয়েছিলাম কিন্তু একটু শব্দ ছিলো না। এর চেয়ে বড় পাওয়া আল্লাহর কাছে আর কি জানাতে পারি।

বিদায়ী জেলা প্রশাসক বলেন, মানুষ বয়সে বেঁচে থাকে না, বেচে থাকে কর্মের মাধ্যমে। এই সভাকক্ষে আসলেই আমার কথা মনে পড়বে। এ অফিসে প্রবেশ করলেই আমার কথা মনে পরবে। বাংলোতে যাবেন, আমার কথা মনে করতেই হবে। কিছু করার নাই তো, কর্মের কারণে মনে পরবে। এগুলো তো আমি সাজিয়েছি।

জুলহাস বলেন, আপনি যেখানেই থাকেন, যাতে আমাদের সাথে যোগাযোগ থাকে। আমি বিভিন্ন সময় এখানে কোন কাজ নিয়ে আসলে জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়া আমার কথা শুনতেন। এবং সাথে সাথে অফিসার নিয়ে আমার কাজ গুলোর সমাধান করে দিতেন। এ জন্য উনার কাছে আমি কৃতজ্ঞ। আর একটি লক্ষ নিয়ে যে বিষয়, উনার প্রতিটি বক্তব্যে পৃতা মাতার প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে বলতেন।

0