বুলেট ট্রেন প্রকল্প: না.গঞ্জ থেকে যে ভাবে হবে লাইন

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ হয়ে বুলেট ট্রেন চলবে এমন স্বপ্ন বাস্তবায়নে ২০১৪ সাল থেকেই কাজ করছে রেলপথ মন্ত্রণালয়। ইতোমধ্যে এ রেলপথের সম্ভাব্যতা সমীক্ষা করতে বিভিন্ন স্থানে করা হয়েছে সয়েল টেস্ট। ট্রেন লাইনটির কাজ ধরা এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা।

পরিকল্পনা অনুযায়ী, চলতি বছরের মে’র ৩১ তারিখ বাংলাদেশ রেলওয়ে চায়না রেলওয়ে ডিজাইন কর্পোরেশন ও মজুমদার এন্টারপ্রাইজের সাথে একটি চুক্তি করে। প্রস্তাবিত হাই-স্পিড ট্রেন লাইনের ডিজাইন ও সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের জন্য এই চুক্তি করা হয়। এই ট্রেন টঙ্গি-ভৈরব থেকে ভায়া হয়ে যাওয়ার পরিবর্তে নারায়াণগঞ্জ দিয়ে যাবে। বর্তমান ঢাকা-চট্টগ্রাম ট্রেন লাইনের দৈর্ঘ্য ৩২০ কিলোমিটার। তবে প্রস্তাবিত বুলেট ট্রেনের দৈর্ঘ্য হবে ২৩০ কিলোমিটার।

রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অবকাঠামো) কাজী রফিকুল আলম জানান, বাংলাদেশে বুলেট ট্রেন চলবে এমন স্বপ্ন বাস্তবায়নে ২০১৪ সাল থেকেই রেলপথ মন্ত্রণালয় কাজ করছে। ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ, কুমিল্লা-লাকসাম হয়ে চট্টগ্রাম পর্যন্ত যাবে লাইনটি। নারায়ণগঞ্জ থেকে দাউদকান্দি পর্যন্ত হবে উড়াল লাইন। এছাড়া শীতলক্ষ্যা, মেঘনা নদীসহ আরও বেশ কয়েকটি নদীর ওপর দীর্ঘ রেলসেতু করতে হবে।

তিনি বলেন, এ প্রকল্প বাস্তবায়নে ৫০ হাজার কোটি টাকার বেশি প্রয়োজন। ইতোমধ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়নে প্রাথমিকভাবেসহায়তা হিসেবে একটি দেশ প্রায় ২৬ হাজার কোটি টাকা দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। রেলপথ নির্মাণ করতে কোনো অসুবিধা হবে না।

এদিকে মন্ত্রনালয়নের এক কর্মকর্তা জানান, এখন চুড়ান্ত হয়নি লাইনটি কোন স্থান দিয়ে যাবে। তবে কিভাবে ট্রেন লাইনটি হবে, সেই পরিকল্পনা করা হয়ে গেছে।

পূর্বের নিউজ পড়তে ক্লিক করুন

না.গঞ্জে শুরু হলো ‘বুলেট ট্রেন’র নির্মাণ কাজ (ভিডিওসহ)

0