‘ব্যবসায়ী-আইনজীবী-প্রেসক্লাব’ এক‌ত্রে কাজ করার আহ্বান সে‌লিম ওসমা‌নের

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: করোনা পরিস্থিতিতে অনেকেই ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তবে, সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপে অনেকটাই ক্ষতি কাটিয়ে উঠছে। করোনায় বিগত দিনে ব্যবসায়ীদের অনেক সহযোগীতা ছিল। কিন্তু এখন কারখানা গুলো খুব ভাল নেই।
আইনজীবী সমিতির নব নির্বাচিতদের সাথে মঙ্গলবার (১ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি সেলিম ওসমান।

এ সময় করোনা মোকাবেলায় সকলকে আরো সচেতন হওয়ার আহবান রাখেন।

সকল আইনজীবীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনার আদালতে যারা আসবে তাদের মধ্যে সবাই যেন মাস্ক ব্যবহার করেন সেই উদ্যোগ নিতে হবে। মাস্কছাড়া কাউকে আদালতে প্রবেশ করতে দেওয়া হবেনা, আগত ব্যক্তির টিকার সনদ আছে কিনা এটা তদারকির দায়িত্ব নিলে সাধারণ মানুষও আগ্রহী হবে।

আইনজীবী সমিতির নির্মিত ভবন সম্পর্কে তিনি বলেন, ভবনটি দু’তলা সম্পন্ন হয়েছে। কিন্তু এখনো নারী আইনজীবীদের বসা সহ টয়লেটের সমস্যা রয়েছে, ভবনটি করার সময় মুহুরিদের জায়গাও নেওয়া হয়েছিল তারাও দাবী করতে পারেন। বর্তমানে আমার অবস্থা খুব বেশি ভাল না। তবে আমি বলবো আপনারা বাজেটটা দেন। ওই সময় আইনমন্ত্রী ভবনটির জন্য ১ কোটি টাকা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন, পাটমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা গাজী গোলাম দস্তগীর ১ কোটি টাকা দেওয়ার ঘোষণা দিয়ে ছিলেন। করোনার কারণে হয়তো সেটা আর দেওয়া হয়নি। আপনারা আইনজীবীরা আইনমন্ত্রী ও গাজী ভাই এর কাছে যান ওনাদের অবগত করুন আশা করি সকল সমস্যার সমাধান হবে।

তিনি আরো বলেন, যদি ব্যবসায়ী, আইনজীবী সমিতি এবং প্রেসক্লাব একত্রে যেকোন কাজ করেন তাহলে সেই কাজটি অবশ্যই হবে। আমরা নীটপল্লীর জন্য আবেদন করেছিলাম সেখানে কেউ কেউ জমি বিক্রি করে দেওয়ার পায়তারা করেছিলো। তখন আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব হোসেন আমাকে সহযোগীতা করেছিলো, আমরা জমি বিক্রি বন্ধ করতে পেরেছি। লাঙ্গলবন্দের উন্নয়ন কাজ, নাসিম ওসমান সেতুর কাজ অনেকটাই ধীরগতিতে চলছে, সকলে সহযোগীতা করলে তা দ্রুত সম্পন্ন করা সম্ভব হবে।

সাংবাদিকের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, সদ্য সমাপ্ত হওয়া সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন নিয়ে অনেক রকমের নিউজ হয়েছে। অনেক আতঙ্ক ছড়ানো হয়েছিল। কিন্তু সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ন পরিবেশে নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। আমাকে নিয়েও অনেক কথা লিখা হইছে। একজনকে আরেকজনের পছন্দ থাকতেই পারে। কিন্তু জাতীয় পার্টি থেকে কোন প্রার্থী বা কাউকে সমর্থন দেয়নি। কিন্তু আমরা আগেই বলে ছিলাম, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভুল করেও যদি কাউকে নৌকা দেন জাতীয় পার্টি তার পক্ষেই থাকবে।