ভূইয়াপাড়ায় কাজের মেয়েকে ১ বছর ধরে ধর্ষণ

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ৪ বছর ধরে যে বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করত তরুণী। গৃহকর্তার ছেলের কাছেই ১ বছর ধরে ধর্ষণের শিকার হয়েছে সে। প্রথমে বিষয়টি জানিয়ে ছিল ধর্ষণের অভিযুক্ত ওই ছেলেটির মাকে। বিচার দিয়েও কোন প্রতিকার পায়নি। উল্টো নির্যাতনের শিকার হয়েছে। নির্যাতনের মাত্রা বেড়ে যাওয়ায় সইতে না পেরে বিষয়টি মাকে জানায় যুবতী। পরে যুবতীর মা বাদী হয়ে অভিযুক্ত জুনায়েদ ইবনে আল লিয়ন ও তার মা ফাতেমা বেগমের বিরুদ্ধে মামলা দায়ে করেছে।

সোমবার (২ মার্চ) সকালে ধর্ষিতার মা বাদী হয়ে নারায়ণগঞ্জ সদর থানায় এ অভিযোগ তুলে ধর্ষক ও ধর্ষকের মায়ের নামে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করে। এ ঘটনায় ওইদিন রাতেই নগরীর ভূইয়াপাড়া আল বারাকা এলাকা থেকে আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ধর্ষণের অভিযুক্তের নাম জুনায়েদ ইবনে আল লিয়ন (২৩)। এ ঘটনায় তার মা ফতেমা বেগমকেও মামলার আসামী করা হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ৪ বছর ৫ মাস যাবৎ ফতুল্লা থানাধীন ভূইয়াপাড়া আল বারাকা এলাকার ফাতেমা বেগমের বাসায় কাজ করে নাজনীন আক্তার। সে সুবাধে গত এক বছর যাবৎ ওই যুবতীকে জুনায়েদ ইবনে আল লিয়ন ধর্ষণ করে আসছিল। যুবতী ধর্ষণকারীর মার কাছে বিচার দিয়েও কোন প্রতিকার পায়নি। উল্টো নির্যাতনের শিকার হয়েছে। নির্যাতনের মাত্রা বেড়ে যাওয়ায় সইতে না পেরে বিষয়টি মাকে জানায় যুবতী। পরে যুবতীর মা বাদী ধর্ষণকারী জুনায়েদ ইবনে আল লিয়ন ও তার মা ফাতেমা বেগমের বিরুদ্ধে মামলা দায়ে করেছে।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি আসাদুজ্জামান বলেন, সোমবার মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ তুলে মা বাদী হয়ে ২ জনকে আসামি করে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। সেদিন রাতেই আমরা ধর্ষণের অভিযোগকারী জুনায়েদ ইবনে আল লিয়নকে গ্রেপ্তার করি। তার বিরূদ্ধে ৫দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে, কোর্ট পুলিশ এসআই মো. আজমল বলেন, আসামি বর্তমানে কারাগারে রয়েছে। পিডব্লিউতে ভূল হওয়ায় রিমান্ড শুনানি আগামী বৃহস্পতিবার হবে।

0