ভোটারদের আকৃষ্ট করতে মেয়র আইভীর অনুমোদনবিহীন হাসপাতাল

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ সিটি মেয়র আইভীর উদ্বোধনকৃত নগরীর দেওভোগের সেই কিডনি ডায়ালসিস সেন্টার তথা ১০ শয্যার হাসপাতালের সরকারী কোন অনুমোদন নেই। জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

জানা গেছে, গত মঙ্গলবার (৫ অক্টোবর) শহরের দেওভোগ এলাকায় ১০ শয্যাবিশিষ্ট কিডনি ডায়ালসিস হাসপাতাল উদ্বোধন করেন মেয়র আইভী। সোনার বাংলা ফাউন্ডেশন নামের একটি প্রতিষ্ঠানের সাথে যৌথ উদ্যোগে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন এই ১০ শয্যা হাসপাতালটি চালু করে। বহুল আকাংখিত এই সেবাটি প্রবাসীদের অর্থায়নে চালু হওয়ায় নগরবাসী অনেকে সাধুবাদ জানালেও এর বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন উঠায় নগরবাসী হতাশ। স্বাস্থ্য বিভাগের অনুমোদন ছাড়া অবৈধভাবে এই হাসপাতাল চালু করায় এর কার্যক্রম প্রশ্নবিদ্ধ হবে বলে মনে করছেন নগরবাসী অনেকেই। একই সাথে অনুমোদরেন অপেক্ষা না কওে তাড়াহুড়ো করায় নগরবাসী বলছে ‘সামনে নির্বাচন, তাই ভেলকিবাজি শুরু হয়েছে। এখন অনেক কিছুর উদ্বোধন হবে, ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন হবে, সবই লোক দেখানো, নির্বাচনী ফায়দা হাসিলের জন্য’।

এব্যাপারে জেলা সিভিল সার্জন ডা. মোঃ ইমতিয়াজ এটিকে অনুমোদনহীন হাসপাতাল হিসেবে উল্লেখ করে বৃহস্পতিবার লাইভ নারায়ণগঞ্জকে বলেন, নারায়ণগঞ্জে কিডনি ডায়ালসিস হাসপাতাল উদ্বোধন হলেও আমরা এবিষয়ে কিছুই জানিনা। আমাদেরকে জানানো হয়নি কিছু। আর যেকোন হাসপাতালের কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে স্বাস্থ্য বিভাগের অনুমোদন নিতে হয়। কিন্তু এক্ষেত্রে কোন অনুমোদন নেয়া হয়নি।

বাংলাদেশী প্রবাসীদের অনুদানে পরিচালিত সেবামূলক প্রতিষ্ঠান সোনার বাংলা ফাউন্ডেশন ও সিটি কর্পোরেশনের যৌথ উদ্যোগে দেওভোগে কিডনি ডায়ালসিস সেন্টার তথা ১০ শয্যার হাসপাতাল ৫ অক্টোবর থেকে চালু করা হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, নগর স্বাস্থ্যকেন্দ্র-৩ এর দ্বিতীয় ও তৃতীয় তলা কিডনি ডায়ালাইসিস কার্যক্রমের জন্য ব্যবহৃত হবে। নিচতলায় সাধারণ রোগীদের চিকিৎসা সেবা প্রদান অব্যাহত থাকবে। এনসিসি-এসবিএফ কিডনি ডায়ালাইসিস সেন্টারে কিডনি ডায়ালাইসিস সেবা, কিডনি ডিজিজ অ্যান্ড প্রিভেনশন স্কিনিংসহ সচেতনতামূলক সেবা ও কিডনি রোগীদের প্রয়োজনীয় সেবা প্রদান করা হবে। এখানে নতুন ও পুরাতন রোগীদের ১৯শ’ টাকায় ডায়ালাইসিস করা যাবে।

উল্লেখ্য, চলতি সেপ্টম্বরে বাজেট ঘোষণার পরে বিভিন্ন গণমাধ্যমে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের স্বাস্থ্য খাতের দুরাবস্থা, সেবা বঞ্চিত নগরবাসীর ভোগান্তীর চিত্র তুলে ধওে সংবাদ প্রকাশ করতে। এর পর পরই সিটি করপোরেশনের যেন টনক নড়ছে, ১৮ বছরে যে সেবার খাতটি অবহেলিত হঠাৎ নানা কর্মসূচী মেয়রের আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন বৈতরনী পাড় হওয়ার চেষ্টা বলে নগরবাসী অভিযোগ করছেন।

 

পূর্বের নিউজ পড়তে ক্লিক করুন

এনসিসি’র অর্থ-সামর্থ্য থাকার পরেও মেলেনি কাংখিত স্বাস্থ্য সেবা

0