মাদ্রাসার ভিতর ছাত্রকে খুনের অভিযোগ, শিক্ষক বলছে ‘আত্মহত্যা’ (ভিডিওসহ)

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: সিদ্ধিরগঞ্জের একটি মাদ্রাসার ভিতরে ছাত্রকে খুন করে ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ উঠেছে। তবে, এ ঘটনায় মাদ্রাসাটির প্রধান শিক্ষক বলছে ‘আত্মহত্যা’।

মঙ্গলবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিকালে সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইলের হাউজিং এলাকার সুলতানিয়া তাহফিজুল কুরআনিয়া মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটে। পরে নগরীর খানপুর ৩‘শ শয্যা হাসপাতালে ওই ছাত্রকে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত ওই ছাত্র রূপসীর গন্ধবপুরের জাহাঙ্গীর হোসেন ও আমেনা বেগমের ছেলে আকাশ ওরুফে আবু তালেব (১৪)। সে মাদ্রাসাটির ৪র্থ শ্রেণির ছাত্র ও ২১ পাড়ার হাফেজ ছিলেন।

 চিকিৎসক বলছেন, নিহত আকাশকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। তার শরীরের কোথাও কোন আঘাতের চিহৃ পাওয়া যানি।

মাদ্রাসাটির প্রধান শিক্ষক (বড় হুজুর) মাউলানা মোহাম্মদ আব্দুল রুমান বলেন, আমি আসরের নামাজ পড়ে বের হয়েছি। পরে মাদ্রাসা থেকে ছোট হুজুর ফোন করে জানিয়েছেন ‘আবু তালেব টয়লেটে গিয়ে বের হচ্ছিলো না। দরজা ভেঙ্গে বেড় করেছি।’ তবে, ছোট হুজুরের নাম জানাতে চাচ্ছিলেন না প্রধান শিক্ষক।

এদিকে, নিহতের নানি জানান, হুজুর আমার ছেলেকে ফোন দিয়েছে। আমার ছেলে আমারকে ফোন দিয়ে বলছে ‘আকাশের নাকি অবস্থা খারাপ, সে টয়লেটে মাথা ঘুড়িয়ে পড়ে গেছে। তাকে নাকি হাসপাতালে নিয়েছে, তারাতারি যাও।’ আমি এসে শুনিছি, মারা গেছে।

নিহত আকাশের চাচা আলমগীর হোসেন জানান, এটা সাভাবিক মৃত্যু নয়, এটা হত্যাকান্ড। এ ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত শেষে বিচার চাই।

সদর থানার উপ-পরির্দশক (এসআই) সাব্বির খান জানান, এখানে লাশের মৃত্যুর ব্যাপারে ২ ধরনের তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। তাই সঠিক কোনটা বলা যাচ্ছে না। তবে, লাশ ময়না তদন্তের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। প্রতিবেদন আসলে মৃত্যুর রহস্য বেড়িয়ে আসবে।

ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন

 

0