যাতায়াতে তীব্র দুভোর্গ, ডিএনডি ক্যানেলের উপর ব্রিজ চায় নগরবাসী

0

সিদ্ধিরগঞ্জ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: প্রতিদিন কয়েক হাজার এলাকাবাসীর যাতায়াত রাস্তাটি দিয়ে। সিদ্ধিরগঞ্জপুল বাজার পার হয়ে মিজমিজি পূর্বপাড়া ক্যানেলপাড় হয়ে জালকুড়ি পর্যন্ত অসংখ্য মানুষের চলাচল এ রাস্তা দিয়ে। পাশাপাশি অনেক যানবাহনের যাতায়াতও এ রাস্তা দিয়ে। এই রাস্তা ব্যবহার করতে এলাকাবাসীকে যেতে হয় অনেকটুকু পথ হেটে সিদ্ধিরগঞ্জপুল দিয়ে।

ডেমরা-নারায়ণগঞ্জ সড়কে সোজা পথে উঠতে একটি ব্রীজের অভাবে বছরের পর বছর এলাকাবাসীকে কষ্ট করতে হচ্ছে। আদমজী ইপিজেডসহ সিদ্ধিরগঞ্জের নানা শিল্পকারখানার শ্রমিক-কর্মচারী-কর্মকার্তা, স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসার ছাত্র-ছাত্রী, অফিস-আদালতের কর্মচারী-কর্মকর্তাসহ এলাকার সাধারণ মানুষদের এ দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

বৃষ্টির দিনে তাদের এ দুর্ভোগের মাত্রা আরও বাড়ে। অথচ নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন সিদ্ধিরগঞ্জ ভাঙ্গারপুল থেকে শিমরাইল গলাকাটা ব্রীজ পর্যন্ত ডিএনডি প্রধান খালের উপর কয়েকটি ব্রীজ নির্মাণের পাশাপাশি খালটির সৌন্দর্য্যবর্ধনের কাজ হাতে নিয়েছে। এ খালের উপর মিজমিজি পাগলাবাড়ি বরাবর একটি ব্রীজের অভাবে বছরের পর বছর এলাকাবাসীকে দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এতে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।

ক্ষোভ জানিয়ে স্থানীয় ব্যবসায়ী মো. ইদ্রিছ আলী বলেন, মিজমিজি পূর্বপাড়া পাগলাবাড়ি (ক্যানেলপাড়) থেকে জালকুড়ি পর্যন্ত রাস্তা দিয়ে দৈনিক কয়েক হাজার মানুষ যাতায়াত করে। এই রাস্তায় আসতে আমাদেরকে সিদ্ধিরগঞ্জ পুল হয়ে আসতে হয়। এতে পুল সংলগ্ন বাজারে অসংখ্য মানুষের চলাচলে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। তাছাড়া বাজারের কারণে সবসময় রাস্তায় পানি জমে থাকে এবং কর্দমাক্ত হয়ে থাকে। ডিএনডি খালের উপর ব্রীজ নির্মাণ করা হলে আমরা সহজেই ডেমরা-নারায়ণগঞ্জ সড়কের সাইলো রাস্তায় উঠতে পারতাম। এতে আমাদের বিড়ম্বনা কমে যেত।

আহসান নামে আরেক ব্যবসায়ী বলেন, আদমজী ইপিজেড ও বিভিন্ন ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের পাশে এ এলাকার অবস্থান হওয়ায় এই এলাকায় জনগণের চাপ একটু বেশি। শিল্প কারখানাগুলোতে অসংখ্য মানুষ কাজ করে বিধায় প্রতিনিয়তই মিজমিজি, পাগলাবাড়ি, বাতানাপাড়া এলাকায় মানুষের বসবাস ও যাতায়াত বেশী থাকে। এই এলাকার মানুষগুলো শুধুমাত্র সিদ্ধিরগঞ্জ পুল দিয়ে আসা-যাওয়া করার কারণে প্রতিনিয়ত ছোট-বড় ভোগান্তি পোহাতে হয়। এই ভোগান্তি কমাতে ক্যানেলপাড় এলাকায় ডিএনডি খালের উপর কালভার্ট বা ব্রীজ নির্মাণ জরুরী হয়ে পড়েছে।

স্থানীয় আরেক বাসিন্দা মো. বাবু বলেন, শুনেছি ক্যানেলপাড় হয়ে জালকুড়ি গামী রাস্তাটি সংস্কার করা হবে এবং এই সড়কে বড় যানবাহন চলাচল করতে পারবে। এমনটা হলে ক্যানেলপাড় এলাকায় ব্রীজ নির্মাণ করা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এতে মানুষের চলাচলে ভোগান্তি কমবে। অন্যথায় সাধারণ মানুষের ভোগান্তী রয়েই যাবে।

এ বিষয়ে কথা হলে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের উপ-সহকারী প্রকৌশলী সুমন চন্দ্র দেবনাথ (সিভিল) জানান, মিজমিজি (ক্যানেলপাড়) এলাকায় ডিএনডি খালের উপর ব্রীজ নির্মাণের কোন পরিকল্পনা আমাদের কখনো ছিল না। তবে এলাকাবাসী চাইলে সিটি কর্পোরেশনের কাছে আবেদন করতে পারে। সাধারণ মানুষের পায়ে হেটে খাল পার হওয়ার জন্য পূর্বে যে কাঠের ব্রীজগুলো ছিল, সেগুলোর পরিবর্তে বর্তমানে নতুন করে এই ব্রীজগুলো নির্মাণ করা হচ্ছে।

0