রূপগঞ্জে ডাকাতি করে গাজিপুরে ধরা!

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ডাকাতির এক মাস পর নারায়ণগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা শাখার নিকট গ্রেফতার হলো ৪ ডাকাত। মঙ্গলবার (১৪ মে) রাত ৮টা থেকে বুধবার (১৫ মে) সকাল ৯টা পর্যন্ত ইন্সপেক্টর মো. গিয়াস উদ্দিন (পিপিএম) এর নেতৃত্বে এক বিশেষ অভিযানে এদের গ্রেফতার করা হয়।

বুধবার (১৫ মে) পুলিশের এক প্রেরিত বার্তায় এ তথ্য জানানো হয়। বার্তায় আরও জানানো হয়, ডাকাতদের গাজীপুরের টঙ্গীর বৌ-বাজার ও টঙ্গী রেললাইন বস্তি এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে রুপগঞ্জ থানার মামলা নং-০২, তারিখ-০১/০৪/২০১৯, ধারা-৩৯৫/৩৯৭ পেনাল কোড; এই ডাকাতি মামলার লুন্ঠিত মালামাল উদ্ধার হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, নরসিংদী জেলার মাধবদী থানার বিবির কান্দি গ্রামের আ.মতিনের সন্তান মন্টু, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুর থানার জগন্নাথপুরের মোহাম্মদ আলমের সন্তান সুমন (২৪), জেএমপি গাজীপুরে টঙ্গী থানার হাজী বাগান গ্রামের আকবর আলীর সন্তান লাল মিয়া (৫২), নেত্রকোনা জেলার বারহাট্টা থানার যোগিসালন গ্রামের মো. সাব্বির আলীর সন্তান মো. সাগর আলী (৩৩)।

এ ব্যাপারে ইন্সপেক্টর গিয়াসউদ্দিন বলেন, এক মাস আগে রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাচনের দিন, অর্থাৎ ৩১ মার্চ ভোর রাতে উপজেলার এক বাড়িতে ডাকাতি হয়। এসময় ডাকাতরা বাড়ি থেকে ২-৩ লক্ষ টাকা ও একটি মোবাইল ফোনসহ আরও কিছু মালামাল নিয়ে যায়। পরে মঙ্গলবার (১৪ মে) অনুসন্ধান করে আমরা তাদের গ্রেফতার করি। আমরা লুন্ঠিত মোবাইল ফোন উদ্ধার করতে পেরেছি। অন্যান্য মালামাল উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

বার্তায় উল্লেখ করা হয়, রমজান ও ঈদ উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জবাসীর শান্তির পরিবেশে চলাফেরার জন্য শহরে নিয়মিত অভিযানের নির্দেশ দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ, বিপিএম(বার), পিপিএম(বার)। ৭ মে থেকে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়। ৩১ মে পর্যন্ত শহরে অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এছাড়াও যানজট নিরসনের লক্ষ্যে সড়ক ও মহাসড়কে জনসাধারণের স্বাভাবিক চলাচল নিশ্চিত কল্পে জেলা বিশেষ শাখা, নারায়ণগঞ্জ কর্তৃক বিশেষ প্রোগ্রাম করা হয়েছে। সমস্ত জেলার সকল সড়ক ও মহাসড়কগুলোকে চারটি সেক্টরে ভাগ করা হয়েছে। প্রতিটি সেক্টরকে ২ টি করে সাবসেক্টরে ভাগ করা হয়েছে। এ প্রোগ্রামে জেলা পুলিশ ও ট্রাফিক বিভাগ একত্রে কাজ করছে।

৭৬
0