লাখো মুসল্লির দোয়ার মধ্যে দিয়ে শেষ হলো জোড়

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: তাবলিগ জামাতের ৩ চিল্লার ১১ জেলার সাথীদের নিয়ে নারায়ণগঞ্জের চলা ৩ দিনের ইজতেমার পূর্ববর্তী জোড় শেষ হয়েছে।

রোববার (১ ডিসেম্বর) আখেরি মোনাজাতের মাধ্যম দিয়ে শেষ হবে আলেমী সূরার তাবলীগ জামাতের এ জোড়।

এর আগে, শুক্রবার সকাল ৯ টায় ভারতের তাবলীগ জামাত আলেমী সূরা সমর্থিত মুরুব্বী মাওলানা আকবর শরীফের তারগীবি বয়ানের মধ্যে দিয়ে জোড় শুরু হয়েছিল। গত ৩দিন লাখো মুসল্লির অংশগ্রহণে জোড়ের ময়দান কানায় কানায় পরিপূর্ণ ছিল।

টঙ্গীর ময়দানে ২০২০ সালের এজতেমার প্রথম পর্ব শুরু হবে ১০ জানুয়ারী। প্রতিবারই এজতেমা পূর্ববর্তী জোড় টঙ্গীর মাঠে হয়। তবে, এবার নারায়ণগঞ্জ, চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ, যশোরে করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নারায়ণগঞ্জে প্রথম বারের মতো আয়োজিত এ জোড়ে অংশ নিয়েছে ১১ জেলার (ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, নরসিংদি, বরিশাল, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, ভোলা, পটুয়াখালী এবং বরগুনা) ৩ চিল্লার সাথীরা।

দুপুরে সরিজমিনে গিয়ে দেখা যায়, আখেরি মোনাজাত তখনও শুরু হয়নি। এরই বিভিন্ন জেলা থেকে আগত অনেকে সঙ্গে থাকা সামগ্রী নিয়ে বাড়ি ফির ছিলেন। তবে, বেশির ভাগ মুসল্লিরাই আখেরি মোনাজাতের অপেক্ষায় বসে ছিলেন। ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোর্ডের দুই পাশে অসংখ বাস-ট্রাক ও প্রাইভেটকার দাঁড়িয়ে ছিল মুসল্লিদের নিয়ে যাওয়ার অপেক্ষায়। দুপুরের পর শুরু হয় আখেরি মোনাজাত। মোনাজাত শেষে বাড়ি ফিরতে শুরু করে মানুষ।

নারায়ণগঞ্জের এ জোড় ইজতেমার জিম্মাদার জাকির হোসেন মাসদাইরি জানান, ‘তিন চিল্লার ১১টি জেলা সাথীদের নিয়ে নারায়ণগঞ্জে এ জোড় ইজতেমা শুরু হয়। ৩২ খিত্তায় অবস্থান করছে সাথীরা। তাদের নিরাপত্তায় ছিল জেলা প্রশাসন, মেডিকেল টিম, এম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস ও পর্যাপ্ত নিরাপত্তা কর্মী।’

0