শামীম ওসমানের মন খারাপ!

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: স্বপ্ন ছিল দেশের বৃহত্তম ঈদ জামাত নারায়ণগঞ্জে আয়োজন করার। লাখো মানুষের সাথে দাঁড়িয়ে নামাজ পড়ার। ঈদ এর নামাজের পর সকলের সাথেই করবেন কোলাকুলি। কিন্তু করোনার কারণে সেটা আর হচ্ছে না। তাই মন খারাপ নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের।

এক সময় কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়াতে হতো বাংলাদেশের বৃহৎ ঈদ জামাত। এখন তা দ্বিতীয়, কয়েক বছর ধরে দেশের সবচেয়ে বৃহৎ জামাত আয়োজন হচ্ছে দিনাজপুরের ঐতিহাসিক গোর-এ শহীদ বড় ময়দানে। দেশের বৃহৎ সেই জামাতের তালিকায় স্থানীয় সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের উদ্যোগে গত দুই বছর নারায়ণগঞ্জের নামটিও উঠেছে।

তৃতীয় বৃহৎ ঈদ জামাতটি ২০১৮ সাল হতে নারায়ণগঞ্জে হচ্ছে। আয়োজকদের ছিল প্রত্যাশা আস্তে আস্তে এটা অন্যতম সুন্দর ও বৃহৎ আয়োজন হবে নারায়ণগঞ্জের ঈদ জামাত। প্রতি জামাতেই নতুনত্ব আনা হচ্ছিল। প্রায় দেড় লাখ মুসল্লির এক সাথে যেন নামাজ আদায় করতে পারে তার ব্যবস্থা করা হয়। তবে, বর্তমান করোনাভাইরাসের মহামারির এ দুর্যোগে সে ধারাবহিকতা রাখা সম্ভব হচ্ছে না।

শামীম ওসমান লাইভ নারায়ণগঞ্জের কাছে বলেছেন, ‘এবার ইচ্ছে ছিল একেএম শামসুজ্জোহা ক্রীড়া কমপ্লেক্স ও ওসমানী পৌর স্টেডিয়াম নিয়ে ঈদ জামাত করার। কিন্তু পরিস্থিতি তা বলেছে না। এ কথা স্মরণ হলেই মনটা খারাপ হয়ে যায়। তারপরেও আশা আছে, আল্লাহ যদি মাফ করে দেয়, প্রয়োজনে খালি মাঠে নামাজ পড়বো।’

গত ১৪ মে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের এক জরুরি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, করোনাভাইরাসের মহামারীর মধ্যে এবার রোজার ঈদের দিন ঈদগাহ বা খোলা জায়গার বদলে বাড়ির কাছে মসজিদে ঈদের নামাজ পড়তে বলেছে সরকার। সেইসঙ্গে মসজিদে ঈদ জামাত আয়োজনের ক্ষেত্রে সুরক্ষার ব্যবস্থা এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বেশ কিছু শর্ত দিয়ে ধর্ম মন্ত্রণালয় বলেছে, এসব নির্দেশনা না মানলে ‘আইনগত ব্যবস্থা’ নেওয়া হবে।

0