শীতলক্ষ্যার পাড়ের অর্ধশত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: আইন অমান্য করে শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে গড়ে উঠেছে নানা ধরণের অবৈধ স্থাপনা। আর এই সকল স্থাপনা উচ্ছেদের অভিযান শুরু করেছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বি-আই-ডব্লিউ-টি-এ)।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) দুপুর ১২ টায় রূপগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদীর সীমানার দেড়শ ফুটের ভেতরে গড়ে উঠা প্রায় অর্ধ-শত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে বিআইডব্লিউটিএ (নারায়ণগঞ্জ) কর্তৃপক্ষ।

বিআইডব্লিউটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে উপজেলার তারাব এলাকায় এ অভিযান চালানো হয়। অভিযানে ৪-৫ টি স’ মিল, কয়েকটি কাঠের দোকান, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এব কাচা পাকা ও টিনের বসতঘর গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়।

অভিযান চলাকালে উচ্ছেদকৃত অবৈধ দোকানপাট থেকে কাঠ, টিন, বালু সহ বিভিন্ন মালামাল জব্দ করা হয়। পরে সেই সামগ্রী নিলামে দুই লক্ষ বিশ হাজার টাকার বিনিময়ে বিক্রি করা হয়।

উচ্ছেদ অভিযানে আরো উপস্থিত ছিলেন বিআইডব্লিউটিএ নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের উপ-পরিচালক মো. শহীদুল্লাহ সহ অন্যান্য কর্মকর্তারা। পুলিশ ও আনসার সদস্যরা ছাড়াও বিপুল সংখ্যক উচ্ছেদ কর্মী এ অভিযানে অংশ নেন।

বিআইডব্লিউটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমান জানান, নদীর সীমানা পিলারের অভ্যন্তরে এবং আইন অমান্য করে নদীর সীমানার দেড়শ ফুটের ভেতরে গড়ে উঠা প্রায় অর্ধ-শত অবৈধ স্থাপনা ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে ৪-৫ টি স’ মিল, কয়েকটি কাঠের দোকান, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও কাচা পাকা এবং টিনের বসতঘর রয়েছে। নদী অবৈধ দখলমুক্ত না হওয়া পর্যন্ত এ অভিযান চলবে।

বিআইডব্লিউটিএ’র নারায়ণগঞ্জ নদী বন্দরের উপ-পপরিচালক মো. শহীদুল্লাহ জানান, উচ্ছেদের পূর্বে অবৈধ দখলদারদের স্থাপনা ও মালামাল সরিয়ে নিতে নোটিশ দেয়া হয়েছিল। তারপরেও তারা সরিয়ে না নেয়ায় অবৈধ স্থাপনাগুলো উচ্ছেদ করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, জেলা প্রশাসন, ভূমি কতৃপক্ষ ও বিআইডব্লিউটিএ’র যৌথ সমন্বয়ে নদীর সীমানা সংক্রান্ত পুন:জরিপ হয়েছে। এ অনুযায়ী পুনরায় সীমানা পিলার স্থাপন করা হবে। সেই প্রেক্ষিতে জরিপ অনুযায়ী নদীর জায়গা দখলমুক্ত করা হচ্ছে।

১৭৯
0