শুধু গাড়ি নয়, তেল সরবরাহ করাই বন্ধ করে দেবো : নাজমুল হক

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ : বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম ডিলার্স, ডিস্ট্রবিউটর্স এজেন্টস্ এন্ড পেট্রোল পাম্প ওনার্স এসোসিয়েশন এর সভাপতি আলহাজ্ব মো. নাজমুল হক বলেছেন, নতুন সড়ক আইনে অনেক অসঙ্গতি রয়েছে। সরকার তা স্বীকার করে সংশোধনের জন্য ৬ মাস সময় নিয়েছে। চিন্তার কোন কারণ নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই এর সমাধান দিবে। তবে, অনেক ষড়যন্ত্রকারী ঢুকেছে। চামচারা যদি সমস্যা করে, তাহলে শুধু গাড়ি নয়, তেল সরবরাহ করাই বন্ধ করে দেবো।

মেঘনা পেট্রোলিয়াম ও যমুনা অয়েল ডিপোর ট্যাংকলরী ওনার্স ইউনিট, ফতুল্লা শাখার নতুন কমিটির অভিষেক ও সাধারণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বুধবার সকাল ১০টার দিকে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা থানাধীন পঞ্চবটি যমুনা অয়েল ডিপোর সামনে সভাটি অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় প্রধান অতিথি আরো বলেন, আমাদের মাঝে নতুন করে ষড়যন্ত্রকারী প্রবেশ করেছে। এদের উৎখাত করতে হবে। আমরা নিহত শ্রমিকদের ৫ লক্ষ টাকার বিমার জন্য কাজ করছিলাম। ১০ বছর পর বৈঠক হলো, কিন্তু বৈঠকে ষড়যন্ত্রকারীরা সেটা বাতিল করে দিয়েছে।
মালিক ও শ্রমিকদের উদ্দেশ্যে প্রধান অতিথি বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে বুঝিয়ে বললে তিনি সেটা শুনেন। তাই সরকার জানুয়ারী মাসের আগের সকল ট্যাক্সটোকেন বকেয়া মাফ করে দিয়েছেন। এই সুযোগে আপনারা গাড়ি গুলোর কাগজ ঠিক করে ফেলুন। আপনাদের গাড়ির কাগজ ঠিক থাকলে আমরা যেকোন সমস্যা দেখবো। তা না হলে আমরা আপনাদের ফোনও রিসিভ করবো না। আইনকে সম্মান দিতে হবে।

অনুষ্ঠানে ফতুল্লার যমুনা ও মেঘনা ইউনিটের পেট্রোলিয়াম ডিলার্স ডিস্ট্রবিউটর্স এজেন্টস্ এন্ড পেট্রোল পাম্প ওনার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি মোঃ সাইদুর রহমান রিপনের সভাপতিত্বে বিশষে অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব হারুন-অর রশিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ জায়েদ আহাম্মেদ তপন, কোষাধ্যÿ মোঃ মাসুদুজ্জামান শাহজাহান, বাংলাদেশ ট্যাংকলরী শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মোঃ শাহজাহান ভঁ‚ইয়া, সাধারণ সম্পাদক মোঃ রেজাউল করিম রেজা, বাংলাদেশ ট্যাংকলরী শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আব্দুল মতিন মুন্সী, সংগঠনের সাবেক সভাপতি ও এনায়েতনগর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান লিটন, যমুনা ওয়েল কোম্পানীর লেবার ইউনিয়ণ এর কার্যকরি কমিটির (সিবিআই) সভাপতি জয়নাল আবেদীন টুটুল, সংগঠনের মেঘনা ইউনিটের সভাপতি আফসার উদ্দিন আফসু, যমুনা ইউনিটের সভাপতি মোঃ রহমাত উল্যাহ্ ভান্ডারী, সাধারণ সম্পাদক মোঃ সালাহ্ উদ্দীন আহাম্মেদ, মেঘনা ইউনিটের সাধারণ সম্পাদক হাজী মোঃ শাহীন এবং অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন, ফতুল্লার যমুনা ও মেঘনা ইউনিটের পেট্রোলিয়াম ডিলার্স ডিস্ট্রবিউটর্স এজেন্টস্ এন্ড পেট্রোল পাম্প ওনার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক হাজী মাসুদুর রহমান মাসুদ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সাবেক চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান লিটন বলেন, এই সংগঠনের সাথে আমার সম্পৃক্ততা ছিলো। ২০০৬ সালে আমি সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছি। এখন নতুন ও ইয়াংরা এসেছে। তারা নতুন হলেও দক্ষ। তাদেরকে সবাই সহযোগিতা করবেন। যেন তারা আগামীতে আরো সুন্দর করে এই সংগঠনের নেতৃত্ব দিতে পারে।

জয়নাল আবেদীন টুটুল বলেন, ‘৪ বছর ধরে এই সংগঠনের নেতৃত্ব দিচ্ছি। আমি চেষ্টা করেছি সকলের মধ্যে শৃঙ্খলা সু-সম্পর্ক বজায় রাখতে। এমন সুন্দর পরিবেশ আগামীতেও বিরাজমান থাকবে। মেঘনা ও যমুনার নেতৃবৃন্দরা আমাদের যেভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছে, আগামীতে তারা আমাদের আরো বেশী সহযোগিতা করবে বলে আমরা বিশ্বাস করি। ফেডারেশনের সকলে আমরা এক হয়ে থাকতে চাই।’

সভাপতির বক্তব্যে আলহাজ্ব মোঃ সাইদুর রহমান রিপন বলেন, ২টি ডিপোই যেন সুন্দর ভাবে চলে, সেজন্য আমরা কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। আমরা শ্রমিকদের মধ্যে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনছি। বর্তমানে অতি মাত্রায় জড়িমানা করা হচ্ছে। আমাদের শ্রমিকরা ফাঁসির দড়ি গলায় নিয়ে গাড়ি চালাবে না। সরকারের এই নতুন আইন সংশোধন করতে হবে।

অনুষ্ঠানের শুরুতে নতুন কমিটির নেতৃবৃন্দ ও সদস্যদের নাম ঘোষণার মাধ্যমে পরিচিতি পর্ব সম্পন্ন হয়।

0