শ্বশুরের ভাড়া করা খুনি হত্যা করলো মেয়ে জামাইকে!

0

রূপগঞ্জ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: রূপগঞ্জ উপজেলার চনপাড়া পূর্ণবাসন কেন্দ্রের রংমিস্ত্রী লিটন মিয়াকে প্লট দখল নিয়ে দ্বন্ধকে কেন্দ্র করেই শ্বশুরের বাড়ির লোকজন ছুরিকাঘাত ও শ্বাসরোধে হত্যার পর গুম করিয়েছে বলে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছেন অভিযুক্ত মুসা। সোমবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুল মহসিনের আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দেয় মুসা। মুসা নড়াইল জেলার কালিয়া থানার বড়নাইল এলাকার মরিুজ্জামানের ছেলে। লিটন মিয়ার সঙ্গেই মুসা রংমিস্ত্রী হিসেবে কাজ করতো।

আদালতে মুসার স্বীকারোক্তি মুলক জবাববন্ধির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রূপগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নাজিম উদ্দিন জানান, চনপাড়া পূর্ণবাসন কেন্দ্রের চারটি প্লট নিয়ে লিটন মিয়ার সঙ্গে তার শশুর সামসুল হকের বিরোধ দেখা দেয়। ডেমরা এলাকার কাইল্লা সিরাজ হত্যা মামলায় লিটনকে গ্রেফতারের পর জেল হাজতে পাঠিয়ে দেয় পুলিশ। জেল থেকে ছাড়া পেয়ে লিটন তার চারটি প্লট শ্বশুরের কাছে ফেরত চায়। জেল থেকে ছাড়া পেয়ে লিটন ডকইয়ার্ডে রংমিস্ত্রী হিসেবে কাজ করতো। লিটনের সাথে কাজ করতো মুসা। শ্বশুর সামসুল হক অর্থের বিনিময়ে মুসাসহ অন্যান্য অভিযুক্তদের দিয়ে লিটনকে হত্যা করায়।

মুসার বরাত দিয়ে এসআই আরো জানান, পেটে ছুড়িকাঘাত করে ও শ্বানরোধে হত্যার পর গুম করার উদ্দেশ্যে চনপাড়া এলাকার সিটি গ্রুপের বালুর মাঠে পুতে রাখে লিটনকে। এ ঘটনায় মুসা আরো পাঁচ জনকে ৩ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।

0