শ্রমিকরা বকশিস না বোনাস চায়: হাফিজুল ইসলাম

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের মানুষ বর্তমানে তিনটি আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে। ডেঙ্গু, উচ্ছেদ ও মাথা কাটার। শ্রমিকরা অনেক ধর্য্য ও পরিশ্রম এর সহিত কাজ করে। তাদের মাঠে নামতে বাধ্য করবেন না।

মঙ্গলবার (৬ আগস্ট) বিকাল সাড়ে ৫ টায় কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে শ্রমিকদের ঈদের পূর্ণ বেতন ও বোনাস দেওয়ার প্রতিবাদে সভাপতির বক্ত্যবে এ কথা বলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা শ্রমিক-কর্মচারী সংগ্রাম পরিষদের সমন্বয়ক হাফিজুল ইসলাম।

তিনি আরো বলেন, যারা দেশ পরিচালনা করে ও ক্ষমতায় থেকে শুধু নিজেদের উন্নয়ন করবেন এভাবে তো চলতে পারে না। বাসা বাড়ির ভাড়া ভাড়াবেন, গ্র্যাসের দাম, ও পানির দাম ভাড়াবেন কিন্তু বেতন ভাড়াবেন না এভাবে চলতে পারে না। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যদি তাদের নিজেদের দায়িত্ব সঠিক ভাবে পালন করে তাহলে শ্রমিকদের ঈদের আগে এই ভাবে মানববন্ধন করতে হয় না।

সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক সেলিম মাহমুদ প্রমুখ বলেন, আল্লাহ্র গজব পরবে শ্রমিকদের ন্যার্য্য পাওয়ানা তাদের সঠিক সময়ে না পরিশোধ করলে। দুই এক দিনের মধ্যে বেতন বোনাস সহ পাওনা না বুজিয়ে দিলে প্রয়োজন হলে ঈদের দিন মালিকদের বাড়ির সামনে গিয়ে আন্দোলন করবো পাওয়া বুজে নেওয়া জন্য।

গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি মন্টু ঘোষ বলেন, বাংলাদেশের আইন দুই ধরণের। সরকারি কর্মচারীদের জন্য এক রকমের ও বেসরকারি কর্মচারীদের জন্য আরেক রকমের। সরকারি কর্মচারীরা অনেক আগেই বেতন বোনাস পেয়ে বাসায় যাবার জন্য টিকিট কেটে ফেলে। আর বেসরকারি কর্মচারীরা ঈদের একদিন আগে বোনাস বাধে কিছু বকশিস নিয়ে টিকিট কেটে রোদ্দ, বৃষ্টিতে বিজে বাসায় যায়। বকশিস না বোনাসের ব্যবস্থা করুন। তা না হলে কঠিন বিক্ষোভ হবে শহরে।

গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি আব্দুল হাই শরীফ বলেন, প্রতি ঈদের আগে এই সমাবেশ করতে হয়। কিন্তু কেন? বাংলাদেশে দুই ধরনের সরকারি-বেসরকারি আইনের কারণে। মালিকদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই আপনারা যে কোরবানী দিবেন তা হালাল করতে চাইলে শ্রমিকদের বেতন বোনাস পরিশোধ করুন তা না হলে কোরবানী হালাল হবে না।

এছাড়াও তিনি আরো বলেন, পরিবহন সেক্টর গুলো কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে তার কোন ব্যবস্থা নেন না । গরিব শ্রমিকদের পারিশ্রমিক দেয় না তার কোন ব্যবস্থা নেন না এদেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও সরকার। শ্রমিকরা বকশিস না বোনাস চায়। আগামীকালের মধ্যে বোনাস সহ শ্রমিকদের পাওয়া বুজিয়ে দিবেন তা না হলে আইনিমূল্যক ব্যবস্থা নেওয়া হবে মালিকদের উপর।

নারায়ণগঞ্জ জেলা শ্রমিক-কর্মচারী সংগ্রাম পরিষদের সমন্বয়ক হাফিজুল ইসলামের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন- গার্মেন্টস শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সভাপতি মন্টু ঘোষ, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন নারায়ণগঞ্জ জেলা সভাপতি হাফিজুর রহমান, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলা সভাপতি আবু নাঈম খান, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলা সাধারণ সম্পাদক বিমল কান্তি দাস, গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির সাধারণ সম্পাদক জুলহাস নাইন, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক সেলিম মাহমুদ প্রমুখ।

0