‘সবার দৃষ্টি খোরশেদ-লুনার উপর’

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ। নামটি বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ বাসী নয়, দেশবাসীর নিকট ভালোবাসার এক অন্যতম স্থান। কেননা, করোনার এই মহামারীর সময়ে উপসর্গ কিংবা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুতে যখন পরিবারের লোকেরাও দাফন-কাফনে এগিয়ে আসছিলেন না তখনই সামনে থেকে ভূমিকা রেখেছেন কাউন্সিলর খোরশেদ। পেয়েছেন বীর উপাধিও। সকলের দুঃসময়ে এগিয়ে আসা সেই সেই খোরশেদ এবার নিজেই আক্রান্ত হয়েছেন করোনা ভাইরাসে, আক্রান্ত তার স্ত্রী ও। নারায়ণগঞ্জবাসীসহ দেশবাসী বুকভরা আশা নিয়ে প্রতিনিয়ত অশ্রুজলে দোয়া করছেন যেন তারা সুস্থ হয়ে আবার সকলের মাঝে ফিরে আসেন। শুধু সাধারণ মানুষই নয় দেশ-বিদেশের গণমাধ্যমগুলোতে এ দম্পতি আলোচনার শীর্ষে।

উপসর্গ এবং করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত ৬১ দাফনের পর গত ৩০ মে করোনায় আক্রান্ত হন ‘করোনা বীর’ কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ। সেদিন রাতেই স্ত্রী’র শারীরিক অবস্থায় অবনতি হওয়ায় সাজেদা হাসপাতালে স্ত্রীকে নিয়ে ভর্তি হন কাউন্সিলর খোরশেদ। পরবর্তীতে ৩১মে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে সস্ত্রীক ভর্তি হন খোরশেদ। বর্তমানে স্ত্রীসহ তিনি সেখানেই ভর্তি আছেন। স্ত্রীর করোনার পাশাপাশি নিউমোনিয়া ধরা পড়েছে। এতে তার ফুসফুসের ৫০ শতাংশ অক্সিজেন পাচ্ছে না বলে তিনি এখনো অক্সিজেন সাপোর্টেই আছেন বলে জানান খোরশেদ।

২ জুন গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে খোরশেদ জানান,‘আমি ভালো আছি, আমার স্ত্রীর জন্য সবার কাছে দোয়া চাই। আমি যেন তাকে সুস্থ হিসেবে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যেতে পারি এবং নিজেও সুস্থ হয়ে আবারো মানুষের সেবায় নিজেকে উজাড় করে দিতে পারি সেজন্য সবাই দোয়া করবেন।’

দেশবাসী সবার চাওয়া, আমাদের মাঝে সুস্থ হয়ে ফিরে আসুক এ বীর দম্পতি। করোনা লড়াইয়ে নারায়ণগঞ্জবাসীর নায়ক যেন তার ভূমিকা পালন করতে পারেন, এ প্রার্থনা সারা নগরবাসীর।

এলএন/এইচএস/০৬০৩-০৬

0