সমাজের এইডসের ভয়াবহ পরিণতি তুলে ধরার আহবান ডিসির

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: বর্তমানে অনেক জরুরী রক্ত প্রয়োজন হয়। রেডিমেট রক্ত কিনে এইডসে আক্রান্ত হয়েছেন; এমন অনেক রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। তাই রক্ত দেয়া-নেয়ার ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন প্রয়োজন। পাশাপাশি এইডসের ভয়াবহ পরিণতি সম্পর্কে সমাজের কাছে তা তুলে ধরারও আহবান জানান ।

রোববার (১ ডিসেম্বর) সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা সিভিল সার্জনের আয়োজনে ‘এইডস নির্মূলে প্রয়োজন, জনগণের অংশগ্রহণ’ এ শ্লোগানে বিশ্ব এইডস দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন এসব কথা বলেন।

জসিম উদ্দিন বলেন, এইডস রোগীদের দূরে সরিয়ে না দিয়ে তাদের কাছে ডেকে আনতে হবে। তারাতো আপনাদের আপন জন। তাদেরকে সচেতন করতে হবে। জনসচেতনতাই পারে সমাজ থেকে এইডস নিরাময় করতে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও এইডস রোগীদের জন্য কাজ করছে। কিন্তু তার সুবিধা পাচ্ছে না রোগীরা।নারায়ণগঞ্জেও আমরা এইডসের বিষয়ে অনেক উদ্যোগে নিয়েছি। বিভিন্ন এনজিওগুলোও এবিষয়ে কাজ করছে। এইডস নিরাময় করতে হলে সমাজের মধ্যে সামাজিক জনসচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। জনসচেতনতাই পারে সমাজ থেকে এইডস নিরাময় করতে। তাই সবাইকে সচেতন হতে হবে।

সিভিল সার্জন ইমতিয়াজ আহমেদের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মুহাম্মদ মাসুম বিল্লাহ, নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের (ভিক্টোরিয়া) তত্ত্বাবধায়ক ডা.আসাদুজ্জামান, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার অহিন্দ্র কুমার মন্ডল, এনজিও নেটওয়ার্কের নির্বাহী পরিচালক প্রদীপ কুমার দাশ, আদর্শ মহিলা কল্যাণ সোসাইটির সভানেত্রী এড.নুর জাহান বেগম, আনন্দধাম কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী পরিচালক হাসিনা রহমান শিমু, বন্ধু স্যোশাল ওয়েল ফেয়ার সোসাইটির পরিচালক হুমায়ূন কবির প্রমুখ।

এর আগে বিশ্ব এইডস দিবস উপলক্ষে জেলা সিভিল সার্জনের আয়োজনে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়।

র‌্যালিতে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন এবং ও এনজিওগুলো অংশগ্রহণ করে।

 

না.গঞ্জে দেড় বছরে ৭ হিজড়ার এইডস শনাক্ত

না.গঞ্জে এইডস আক্রান্তের সংখ্যা ৮১ তে দাঁড়িয়েছে

0