সাবেক এসআই’র কান্ড: স্ত্রীর ভরণ পোষন না দিয়ে আরও এক বিয়ে

0

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: পুলিশের সাবেক উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে স্ত্রীর দায়ের করা যৌতুকের মামলায় অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত।

বুধবার (১০ এপ্রিল) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেষ্ট মিল্টন হোসেন যৌতুক নিরোধ আইনে আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন।

বাদি পক্ষের আইনজীবী অ্যাড. মেহবুব হাসান জানান, চার্জ এর শুনানী করার সময়ও আসামী মো. মজিবুর রহমান ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে বাদীনির কাছে যৌতুক দাবি করেন। এসময় ম্যাজিষ্ট্রেট তাঁর দাবির প্রেক্ষিতে অভিযোগ গঠনের নির্দেশদেন।

যৌতুক হিসেবে ২ লাখ টাকা না দেওয়ায় নির্যাতন করা হয়েছেথ এমন অভিযোগে যৌতুক আইনে নালিশি মামলাটি করেন বাদী মোসা. হেলেনা আক্তার। মামলাটিতে শেরপুর জেলার নকলা থানার মৃত নূর মোহাম্মদের ছেলে সাবেক এসআই মো. মজিবুর রহমান ও তার বড় ভাই তোতা মিয়াকে আসামী করা হয়।

মামলার আরজিতে বলা হয়, ১৯৯৬ সালের ১১ এপ্রিল পারিবারিক ভাবে এসআই মজিবুর রহমান সঙ্গে বাদীর বিয়ে হয়। বিয়ের পর তারা একসঙ্গে বসবাস করতে থাকেন। এসময় তাদের ঘরে দুই সন্তানও হয়। কিন্তু সন্তান জন্মের পর থেকেই ২ লাখ টাকা যৌতুক দাবী করে শামীরিক ও মানষিক ভাবে নির্যাতন করতে থাকে। এঘটনায় স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা বিভিন্ন সময় মিমাংসা করে দিয়েছে। ২০১৮ সালের ৩ সেপ্টেম্বর আবারও যৌতুক দাবী করে। এসময় তার ভাই তোতা মিয়া জানান ২ লাখ টাকা এনে না দিলে তার পরিবার সংসার করতে দেবে না। অন্যত্র বিয়ে করাবে।

এদিকে এঘটনার পর আসামীকে অন্যত্র বিয়েও করিয়েছে পরিবারের সদস্যরা।

এবিষয়ে মামলার বাদি মোসা. হেলেনা আক্তার জানান, আসামী মজিবুর রহমান এখন আমার কোন বরণ পৌষন দিচ্ছে না। নিজ গ্রাম শেরপুরের নকলায় গিয়ে ওই এলাকারই এক মাদক ব্যবসায়ী পরিবারের কিশোরী মেয়েকে বাল্যবিবাহ করেছে। এখন ওই মেয়ের সংসার করছে। আর আমাকে নানা ভাবে হুমকি দমকি দিয়ে যাচ্ছে।

২২৭
0