সিদ্ধিরগঞ্জে আরেক নূর হোসেনের সন্ধ্যান পেয়েছে পুলিশ

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ: যুবলীগ নেতাকে নৃশংস ভাবে হত্যার ঘটনায় যাবজ্জীবনের সাজাপ্রাপ্ত আসামী এই নূর হোসেন। তার বিরুদ্ধেও রয়েছে হত্যা, ধর্ষণ, চাঁদাবাজি, মাদক ব্যবসাসহ একাধিক মামলা। নিজেকে আত্মগোপনে রেখে অপরাধ করে গেছেন একের পর এক। তবে, এবার আর পুলিশের চোখ ফাঁকি দিতে পারেনি এ ব্যক্তি।

শুক্রবার বেলা ২টার দিকে আইলপাড়া এলাকায় ক্রাউন সিমেন্ট ফ্যাক্টরীর পাশে শীতলক্ষ্যা নদীর পাড় থেকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এএসআই কামরুজ্জামান ইয়াবা সেবনের সময় হাতেনাতে গ্রেফতার করে এ অপরাধী ও তার সহযোগী শায়েদকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এসময় নুর হোসেন ও শায়েদেও কাছে ১৫ পিছ করে ৩০পিস ইয়াবা উদ্ধার করে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত নুর হোসেন আইলপাড়া এলাকার ফকির মুহাম্মদের ছেলে ও শায়েদ একই এলাকার মরহুম বারেকের ছেলে।

সাজাপ্রাপ্ত আসামী নুর হোসেন পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে কয়েক বছর ধরে মাদকের ব্যবসা করে আসছে। তার বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় হত্যা, ধর্ষণ, চাঁদাবাজি, মাদক-ব্যবসাসহ একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এদিকে দীর্ঘদিন পর সাজাপ্রাপ্ত আসামী নুর হোসেন গ্রেফতারের খবরে এলাকাবাসী স্বস্থি প্রকাশ করেছে। কারণ সাজাপ্রাপ্ত আসামী হওয়া সত্ত্বেও সে বীরদর্পে মাদক বিক্রি করে আসছিল।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, ২০০৪ সালের ২২ সে সেপ্টেম্বর সিদ্ধিরগঞ্জের যুবলীগ নেতা খোকন মল্লিককে এসও রোডস্থ তেলের ডিপো খেয়াঘাট এলাকায় নৃশংস ভাবে হত্যা করার অন্যতম মূল আসামী এই নুর হোসেন। সে এই মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী। কিন্তু তাঁর সাজা সম্পূর্ণ না হওয়ার আগে কিভাবে সে জামিনে ছাড়া পেয়ে এলাকায় এসে মাদক ব্যবসা করছে তা নিয়ে এলাকাবাসীর মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। মাদক ব্যবসায়ি এই সন্ত্রাসীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য জেলা পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার নতুন ওসি কামরুল ফারুক সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আসামী নূর হোসেন জামিনে বেড় হয়ে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে দীর্ঘ দিন যাবত ইয়াবা ব্যবসায় করছিলেন। আজ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

0