সিদ্ধিরগঞ্জে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ: পাল্টাপাল্টি মামলা, গ্রেফতার ১১

0

সিদ্ধিরগঞ্জ করেসপন্ডেন্ট, লাইভ নারায়ণগঞ্জ: ব্যবসায়ীক আধিপত্ত বিস্তারকে কেন্দ্র করে সিদ্ধিরগঞ্জে দুই কাউন্সিলরের সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের ১৫ জন আহত হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ রাতেই উভয় পক্ষের ১১ জনকে গ্রেফতার করেছে। মামলা হয়েছে পাল্টাপাল্টি।
মঙ্গলবার রাতে নাসিক ৬ নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর সিরাজ মন্ডলের সহযোগী আব্দুল হান্নান ও একই ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতির ভাগীনা মামুন ওরফে ভাইগ্না মামুনের ভগ্নিপতি আক্তার ওরফে পানি আক্তার গ্রুপের সংঘর্ষ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের সন্ত্রাসীরা দেশী অস্ত্র চাপাতি, রামদা, রড, লাঠিসোটা ব্যবহার করে। সংঘর্ষের সময় উভয় পক্ষের প্রায় ১৫ জন আহত হয়। খবর পয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (সার্বিক) মীর শাহীন শাহ পারভেজের নের্তৃত্বে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।
সিদ্ধিরগঞ্জের সুমিলপাড়া এলাকায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ও রাত সাড়ে ৯টায় দুই দফায় সংঘটিত সংঘর্ষে হৃদয়, ইব্রাহীম, রবিউল, রাসেল আহমেদ, জসিম, ইসমাইল, ইউসুফ, রাকিব, সাইদুল, শুভ, আরিফসহ ১৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের বয়স ২২ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। রাতে আহতদের খাঁনপুর ৩’শ শয্যা হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
এ ঘটনায় পুলিশ বুধবার বর্তমান কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি গ্রুপের সদস্য আক্তার হোসেন (২৯), মিজান (২৭), রবিন (২০), বিল্লাল হোসেন (২০), নুর হোসেন (২১) ও শামীম (২৯) এবং সাবেক কাউন্সিলর সিরাজ মন্ডলের সহযোগী স্বপন (৪০), ফিরোজ আহমেদ (৩৩), শাহাদাত হোসেন শাকিল (৩১), আব্দুল হান্নান (৩৫), মিজানু রহমান (২৬) কে গ্রেফতার করেছে।
এদিকে গতকাল বুধবার বিকালে বর্তমান কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতির সহযোগী শাহ আলম বাদী হয়ে সাবেক কাউন্সিলর সিরাজ মন্ডল গ্রুপের ১৬ জনের নামে এবং অজ্ঞাত ১০-১৫ জনের বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছে। অপরদিকে সাবেক কাউন্সিলর সিরাজ মন্ডলের সহযোগী জসিম উদ্দিন বাদী হয়ে অজ্ঞাত ২৫ জনের নামে এবং অজ্ঞাত ২৫-৩০ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সুমিলপাড়া, এসও ,আইলপাড়া এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করেছে।
এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর শাহীন শাহ্ পারভেজ জানান, ব্যবসায়ীক আধিপত্ত বিস্তারকে কোন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় দুই পক্ষের ১১জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। দুইজন গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। তারা এলাকায় বিচ্ছিন্ন ঘটনা সংঘঠিত করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করেছে। তাদের কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি বলেন, বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে সামাজিক শান্তি বিনষ্টকারীদের কাউকেই কোন ধরণের ছাড় দেওয়া হবেনা। যদি তারা স্থানীয় প্রতিনিধিদের সমর্থকও হয়, তাতেও কোন লাভ হবেনা।

0