সিদ্ধিরগঞ্জে নৈশ প্রহরীকে কুপিয়ে জখম

0

লাইভ নারায়ণগঞ্জ : সিদ্ধিরগঞ্জে শফিকুর রহমান (৪৫) নামে এক নৈশ প্রহরীকে একই ফ্ল্যাটে ভাড়া থাকা অপর ভাড়াটিয়া আল আমিন ও আনোয়ার ফ্ল্যাটের মধ্যেই কুপিয়ে জখম করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মুক্তিনগর বটতলায় এনসিসি ৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বাদলের বাড়ির সামনে নিয়ে যায়। এ ঘটনার সময় শফিকের পরিবারের কোনো সদস্য বাসায় ছিলেন না।

বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) ভোরে রসুলবাগ এলাকার জাকিরের বাড়িতে এ ঘটনাটি ঘটে। পুলিশের প্রাথমিক ধারনা নারী ঘটিত কোনো বিষয়ে এ ঘটনা ঘটতে পারে। অভিযুক্তদের মধ্যে আল আমিনের বাড়ি রংপুর জেলায় বলে জানা গেছে।

খবর পেয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) জয়নাল ঘটনাস্থলে গিয়ে গুরুতর আহত শফিকের অবস্থা আশংকাজনক দেখে তাকে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। আহত শফিকের মাথায়, গলায়, হাতে ও পিঠেসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখমের চিহ্ন রয়েছে। তার পুরো শরীর রক্তাক্ত ছিলো। এ ঘটনার পর থেকে অভিযুক্তরা পলাতক রয়েছে।

এদিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শফিকের সাথে থাকা তার শ্যালক সেলিম জানান, কর্তব্যরত ডাক্তার দুপরের দিকে শফিককে পঙ্গু হাসপাতালে রেফার্ড করেন।

গুরুতর আহত শফিকুর রহমান বটতলা আমিন মার্কেটে নৈশ প্রহরী হিসেবে কাজ করত বলে জানা গেছে। তবে বাড়িওয়ালা জাকির বলেন শফিক কাউন্সিলর বাদলের মাছের খামারের প্রহরী। সে রাতে ডিউটি শেষে ভোরে বাসায় আসেন। তারপরই এ ঘটনাটি ঘটে।

বাড়িওয়ালা জাকির আরো জানান,‘তিনি বাড়ির দোতলায় থাকেন। গত ১ মাস আগে শফিক বাসাটি ভাড়া নেয়। ভাড়া নেয়ার সময় শফিক জানায় পরিবারসহ তার এক আত্মীয় নিয়ে থাকবেন‘।

ভোর বেলা পাশের বাড়ির লোকজন শফিকের ফ্ল্যাটের খোলা জানালা দিয়ে এ ঘটনা দেখতে পেয়ে তাকে জানালে তিনি দ্রুত শফিকের ফ্ল্যাটে গিয়ে তাকে রক্তাক্তবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। পরে আরো লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে। শফিকের পরিবার বর্তমানে ফরিদপুরে রয়েছেন। তাদের এ ঘটনাটি জানানো হয়েছে। তারা ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন।

ঘটনাস্থলে যাওয়া সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) জয়নাল জানান, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত (বেলা সাড়ে ১২টা) থানায় কেউ কোনো অভিযোগ দায়ের করেনি। নারী ঘটিত কোনো বিষয়ে এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা যাচ্ছে।

তিনি আরো জানান,‘আহতবস্থায় শফিক দুএকজনের নাম বলেছে। তবে কি কারনে এ ঘটনাটি ঘটেছে তা সে বলতে পারেনি। তার অবস্থা আশংকা জনক বিধায় চিকিৎসার জন্য দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে এ ঘটনার রহস্য জানা যাবে। উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করে পরবর্তি পদক্ষেপ নেয়া হবে‘।

0